শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০৯:২১ পূর্বাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
যেখানে খালি জায়গা পাবেন সেখানেই গাছ লাগাবেন : পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

যেখানে খালি জায়গা পাবেন সেখানেই গাছ লাগাবেন : পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবসরপ্রাপ্ত) জাহিদ ফারুক শামীম বলেছেন, পরিবেশগত পরিবর্তন মোকাবেলা করার জন্য বনায়ন খুব গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবে। অতীতের তুলনায় এখন কিন্তু প্রচুর পরিমানে বৃষ্টিপাত হচ্ছে। ১০ বছরে আগে যেমন তাপ ছিল, তার চেয়ে এখন কিন্তু কয়েকগুণ বেড়েছে। পরিবেশের ভারসাম্য ধরে রাখতে বনায়ন খুবই জরুরি। বরিশাল সদর উপজেলার শায়েস্তাবাদ ইউনিয়নের দক্ষিণ চরআইচা গ্রামে শুক্রবার বেলা ১১ টায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ বার্ষিকী উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় আয়োজিত ওই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে বরিশাল সদর আসনের এই সাংসদ বলেন- বনায়ন করলে পরে পরিবেশগত পরিবর্তন হবে, জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য উষ্ণতা যে বেড়েছে সেটা আমরা সহনীয় পর্যায়ে নিয়ে আসতে পারবো। বক্তব্যের মাঝে তিনি স্থানীয়দের উদ্দেশে বলেন, আপনাদের প্রতি অনুরোধ বাড়ির আশপাশে যেখানে খালি জায়গা পাবেন সেখানেই গাছ লাগাবেন। গাছ ঝড়-বৃষ্টি থেকে বাড়িকে রক্ষা করে। কয়েক মাস আগে আম্ফান নামক ঝড়ে সাতক্ষীরা, খুলনা, পটুয়াখালীসহ উপকূলীয় এলাকায় অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আমরা পরিদর্শনে গিয়ে দেখেছি, যেসকল নদীর পাড়ে কিংবা বাড়ির পাশে গাছ ছিলো সেখানে ক্ষতির পরিমাণ কম হয়েছে। যে নদীর তীরে গাছ ছিলোনা সেখানে প্রচুর ক্ষতি হয়েছে, সাথে নদী ভাঙনও বৃদ্ধি পেয়েছে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন- আমরা ভাটির দেশের লোক, এখানকার মাটি খুব নরম। উজানের দেশ চায়না, নেপাল, ভারতে যে বৃষ্টি হয়, সেই বৃষ্টির পানি আমাদের ভাটির দেশ হয়ে বঙ্গোপসাগরে যায়। এই পানি আসবেই, বন্ধ করতে পারবো না। আর পানির সাথে সেসব দেশ থেকে প্রচুর পলিমাটি প্রতি সিজনে আমাদের দেশে আসে। নদী ভরাট হয়ে যায়। আজ ড্রেজিং করলাম ৬ মাস পরে আবার নদী ভরাট হয়ে যাচ্ছে। ড্রেজিংটা ব্যয়বহুল ব্যবস্থাপনা তারপরও ড্রেজিং করে যাচ্ছি। আমরা বড় বড় প্রকল্প হাতে নিচ্ছি, পরিকল্পনাও অনেক রয়েছে। আমরা চেষ্টা করবো দেশের মানুষ যাতে নদী ভাঙন থেকে রক্ষা পায়। অনুষ্ঠানে দক্ষিণাঞ্চল পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলী মো. হারুন অর রশিদের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন- পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মাহমুদুল ইসলাম, পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক এএম আমিনুল হক, জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান এবং বরিশাল সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মাহাবুবুর রহমান মধু। অনুষ্ঠান শেষে প্রতিমন্ত্রী শায়েস্তাবাদ ইউনিয়নে ক্ষতিগ্রস্ত সুইচগেট ও রাস্তাসহ নগরীর বেলতলা খেয়াঘাটের ভাঙনকবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন।’

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com