রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:৪০ অপরাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
সম্পাদক পরিষদ, বরিশালকে নিউজ এডিটরস্ কাউন্সিলের সংবর্ধনা বরিশালের নগর পিতা একজন মিডিয়া বান্ধব ব্যক্তিত্ব- কাজী বাবুল বরিশালে রিক্সা-ভ্যান শ্রমিকদের ৭ দাবিতে বিক্ষোভ উজিরপুর সাতলা ইউপি’র উপ-নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের দৌঁড়ঝাপ উন্নত দেশে পৌঁছতে সরকার তরুণদের ওপর নির্ভরশীল : পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী মেহেন্দিগঞ্জে একাধিক ব্যবসায়ীর ক্ষতি করে মার্কেট নির্মাণ অর্থের বিনিময়ে কমিটি ঘোষণার অভিযোগ : তালতলীতে ১১ ছাত্রদল নেতার পদত্যাগ ভরে ফেলা হচ্ছিল শের-ই-বাংলার ফুফুর জমির পুকুর—এলাকাবাসীর প্রতিরোধ শেবাচিমে হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা হস্তান্তর ভোলায় সাংবাদিকের ওপর সন্ত্রাসী হামলা তেঁতুলিয়া নদীতে জেলে নৌকায় ডাকাতি কালে গুলিসহ আটক একজন
ভোলায় কিশোরীকে গণধর্ষণ, আটক ৪

ভোলায় কিশোরীকে গণধর্ষণ, আটক ৪

ভোলা প্রতিনিধি ॥ ভোলার মনপুরা উপজেলায় ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে চার তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার দুপুরে মনপুরার বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মনপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাখাওয়াত হোসেন। তিনি জানান, এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর খালা বাদী হয়ে মনপুরা থানায় মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত ঈদুল আজহার সময় ঢাকা থেকে ভোলার মনপুরা উপজেলার মনপুরা ইউনিয়নে খালার বাড়িতে বেড়াতে যায় ভুক্তভোগী কিশোরী। এরপর থেকে সেখানেই বসবাস করছিল। গত ৭ সেপ্টেম্বর রাত ১০টার দিকে কিশোরী শৌচাগারে যাওয়ার জন্য ঘুম থেকে উঠে ঘরের বাইরে বের হয়। সে সময় ওত পেতে থাকা ছয় তরুণ ভুক্তভোগীর মুখ চেপে ধরে মোটরসাইকেলে উঠিয়ে নিয়ে যায়। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, আসামিরা প্রথমে কিশোরীকে নিয়ে যায় মনপুরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবনির্মিত চারতলা ভবনের দোতলায়। সেখানে নিয়ে তাকে তারা ধর্ষণ করে। শেষ রাতের দিকে কিশোরীর হাত, পা ও মুখ বেঁধে ফের মোটরসাইকেলে তুলে উপজেলার আন্দিরপাড় মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভবনে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে ফের ধর্ষণসহ পাশবিক নির্যাতন চালায় তারা। পরে ভোরের দিকে ভুক্তভোগীকে সেখানে ফেলে পালিয়ে যায় তারা। পরে কিশোরীর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে।
পুলিশ খবর পেয়ে ১০ সেপ্টেম্বর রাতেই অভিযান চালিয়ে তিন জন এবং গতকাল মামলা দায়েরের পর একজনসহ মোট চার জনকে গ্রেপ্তার করেছে। বাকিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। মামলার বাদী ও ভুক্তভোগীর খালা জানান, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের চাপে পড়ে প্রথমে স্থানীয়ভাবে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করা হয়। পরে ঘটনাটি পুলিশ জানতে পারে। কিশোরীকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করলে আসল তথ্য বের হয়ে আসে। পরে কিশোরীকে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে যায়। তার জবানবন্দির সূত্র ধরে পুলিশ চার জনকে গ্রেপ্তার করে। মনপুরা থানার ওসি সাখাওয়াত হোসেন বলেন, ‘গত সোমবার কিশোরীকে তুলে নিয়ে দল বেধে ধর্ষণ করেছে। বৃহস্পতিবার পুলিশ খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে তিন জন, শুক্রবার মামলার পর একজনসহ মোট চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে। বাকিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। আজ সকালে ওই কিশোরীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তাকে ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।’ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মনপুরা থানার পরিদর্শক মো. মামুন জানান, গ্রেপ্তার তরুণদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। সেখানে তাদের রিমান্ডের আবেদন করা হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com