শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ০৩:৫২ অপরাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
সংকটকালে দুয়ারে ঈদ দেশের আকাশে চাঁদ দেখা যায়নি, ঈদ শুক্রবার বরিশাল দি-নিউ লাইফের পক্ষ থেকে দুঃস্থ অসহায়দের মাঝে ঈদ সামগ্রী প্রদান বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা সবসময় সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে কাজ করে যাচ্ছেন-এমপি শাওন গৌরনদীতে আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর পক্ষে ঈদ সামগ্রী বিতরণ বাবুগঞ্জে মাধবপাশায় অসহায়দের মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ কলাপাড়ায় অসহায় ও দরিদ্রদের মাঝে এমপি অধ্যক্ষ মহিবের খাদ্য সহায়তা বিতরন গৌরনদীতে অজ্ঞাতনামা বাসের চাঁপায় ২ মাহিন্দ্রা যাত্রী নিহত॥ মাহিন্দ্রার চালকসহ আহত ২ বাকেরগঞ্জে র‌্যাবের অভিযানে ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ঈদের আগে অর্থ সহায়তা পেয়ে খুশি কর্মহীন পরিবারের সদস্যরা
৩ ইভটিজারের দখলে নগরীর বাকলার মোড় আতংকে স্কুল ছাত্রীরা

৩ ইভটিজারের দখলে নগরীর বাকলার মোড় আতংকে স্কুল ছাত্রীরা

ষ্টাফ রিপোর্টার॥ মমতাজ মজিদুন্নেছা বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের আতংকের স্থান বাকলার মোড়। স্কুল ছুটি ও শুরুর সময় মেয়েরা রাস্তা দিয়ে আসা যাওয়া করতে পারেনা শুধূ মাত্র একটি বখাটে গ্রুপের জন্য। বিষয় দর্ঘি দিন যাবৎ ঘটলেও স্কুল কতৃপক্ষ ও প্রশাসনের লোকজনের রয়েছে াজানা। যে কারনে প্রতিদিনই ওই স্কুলের মেয়েদের শিকার হতে হয় ইভটিজিংয়ের। এমনী একটি ঘটনার সুত্রপাত ঘটেছে গত ২০ ও ২১ মে। ওই দির স্কুল ছুটির পরে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থীকে বাকলার মোড়ে বসে ইভটিজিংক করেছিলো। সংবাদ পেয়ে ওই ছাত্রীর মা গিয়ে ওই ইভটিজারদের শাসিয়ে আসে। পরে জানাগেছে, ওই ইভটিজার দুরের কেহ নয়। তারা হলো আঃ রাব্বি, জয় ও হৃদয়। এরা ৩ জন মিলে বাকলার মোড়ে বসে অটো রিকসার ষ্টান্ডে চাঁদা উত্তোলন করে। ওই ষ্টান্ডের সরকারি কোন চাঁদার নিয়ম না থাকলেও ছিচকে ওই সন্ত্রসীরুপের আঃ রাব্বি, জয় ও হৃদয় মিলে ১০ টাকা করে চাঁদা তোলে। এক কথায় তাদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে ওই ষ্টান্ডের অটো রিকসা চালকরা। কোতযালী মডেল থানা ও কাউনিয়া থানার বর্ডার হওয়ায় বাকলার মোড়ে কোন থানা পুলিশই টহল জোরদার ব্যবস্থা করেনা। তার পরে আবার বরিশালের মধ্যে উল্লেখযোগ্য বালিকা বিদ্যালরেয়র মধ্যে মমতাজ মজিদুন্নেছা বালিকা অন্যতম। কিন্তু সেই স্কুল মুরু ও ছুটির সময় যদি থানা পুলিশ একটু টহল ব্যবস্তা জোরদার করতো তাহলে অন্তত্য ইভটিজিংয়ের মাত্রা কমতো। স্থানীয়দের তথ্য মতে, ওরা ৩ জন প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ১২ টা ১ টা পর্যন্ত বাকলার মোড়ে আড্ডায় মেতে থাকে। ওই সময় যেকোন মেয়েরাই শিকার হয় আঃ রাব্বি, হৃদয় ও জয়ের ইভটিজিংয়ের। আর এতে কেহ প্রতিবাদ কররে তারা তাদের উপরও চড়াও হয়ে অসম্মান করে। যাতে করে ওই এলাকার কোন ভদ্র লোক কোন অন্যয়েরে প্রতিবাদ করেন। স্থানীয়রা বলছে এতো অন্যায়ের পরেও পুলিশ প্রশাসন কেন তাদের কে আইনের আওতায় আনছেনা। তথ্য মতে, আঃ রাব্বির বড় ভাই কিছু দিন আগে চট্টগ্রামে ইয়াবা সহ আটক হয়। তথ্য মতে আঃ রাব্বি রাতে ঘুমায় তার বন্ধুর বাড়ি ঘুমালেও সকালে পুনরায় বাকলার মোড়ে এসে চাঁদাবাজী আর ইভটিজিংয়ে মেতে থাকে। বর্তমানে ওই স্কুলের অভিভাবকরা তাদের মেয়ে সন্তানদের নিয়ে রয়েছে আতংকে। যেকোন সময় ঘটতে পারে বড় কোন দূর্ঘটনা। আর এর একমাত্র কারন ইভটিজিং। তাই ছিচকে সন্ত্রসী রুপে ইভটিজার আঃ রাব্বি, হৃদয় ও জয় কে এখনই আইনের আওতায় না আনলে ওই এলাকায যে কোন মুহুর্থে বড় ধরনের র্দর্ঘটনা ঘটতে পারে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com