শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ১০:৫৩ অপরাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
বায়ু দূষণে বিশ্বে শীর্ষে বাংলাদেশ

বায়ু দূষণে বিশ্বে শীর্ষে বাংলাদেশ

দখিনের খবর ডেস্ক ॥ বায়ু দূষণে ২০২০ সালে বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত দেশের তালিকায় উঠে এসেছে বাংলাদেশের নাম। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে পাকিস্তান, ভারতের অবস্থান তৃতীয়। ২০২০ সালের বিশ্বের বায়ুর মানের ওপর ভিত্তি করে এ তালিকা প্রকাশ করেছে সুইজারল্যান্ডভিত্তিক সংস্থা আইকিউএয়ার। পার্টিকুলেট ম্যাটার (পিএম২.৫) বা বস্তুকণার ২.৫ মানের ওপর ভিত্তি করে বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত বায়ুর দেশ ও শহরের তালিকা প্রকাশ করেছে আইকিউএয়ার। খবর ডেইলি মেইলের। তালিকায় টানা তৃতীয়বারের মতো বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত রাজধানী চিহ্নিত হয়েছে ভারতের নয়াদিল্লি। এক্ষেত্রে ঢাকার অবস্থান দ্বিতীয়। ঢাকার বায়ুতে পার্টিকুলেট ম্যাটার বা পিএম-২.৫ এর উপস্থিতি প্রতি ঘনমিটারে ৭৭ দশমিক ১ শতাংশ ছিল। দূষিত রাজধানীর তালিকায় তৃতীয় মঙ্গোলিয়ার উলানবাটরের প্রতি ঘনমিটার বায়ুতে পিএম-২.৫ এর উপস্থিতি পাওয়া গেছে ৪৬ দশমিক ৬ শতাংশ। আইকিউএয়ার জানিয়েছে, গত বছর সামগ্রিক বায়ু মান বিবেচনায় বাংলাদেশের বায়ুতে প্রাণঘাতী পার্টিকুলেট ম্যাটার বা পিএম-২.৫ এর উপস্থিতি প্রতি ঘনমিটারে ছিল ৭৭ দশমিক ১ শতাংশ; যা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বেঁধে দেওয়া সীমার চেয়ে সাতগুন বেশি। দূষিত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের পড়ে রয়েছে যথাক্রমে-পাকিস্তান, ভারত, মঙ্গোলিয়া ও আফগানিস্তান। ২০২০ সালের বিশ্বের শীর্ষ ৫০টি দূষিত শহরের তালিকায় ভারতেরই ৩৫টি শহর ঠাঁই পেয়েছে। মানব স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক পিএম২.৫ বিভিন্ন ধরনের রোগ যেমন- ক্যান্সার, হৃদযন্ত্রের সমস্যা তৈরি করে। বায়ূতে পিএম-২.৫’র যে উপস্থিতি পেয়েছে তা বৈশ্বিক স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত বিপজ্জনক বলে সতর্ক করেছে আইকিউএয়ার। তবে বিশ্বের সবচেয়ে কম দূষিত শহর নির্বাচিত হয়েছে পুয়ের্তো রিকো, প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ফরাসি ভুখণ্ড নিউ ক্যালেডোনিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ। গবেষকরা বলেছেন, ২০২০ সালে বৈশ্বিক বায়ু মানে তাৎপর্যপূর্ণ উন্নতি দেখতে পেয়েছেন তারা। বায়ু মানের এই উন্নতির পেছনে কাজ করেছে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বিশ্বজুড়ে চলা লকডাউন। এ সময় আংশিকভাবে কিংবা পুরোপুরি বন্ধ ছিল পরিবহন এবং শিল্প কারখানা। আইকিউএয়ার বলছে, গত বছর বিশ্বের ৬৫ শতাংশ শহরের বায়ু মানের উন্নতি ঘটেছে। আর দেশের হিসেবে বিশ্বের ৮৪ শতাংশ দেশে বায়ু মানের উন্নতি হয়েছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com