রবিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২১, ১০:২৬ অপরাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
তোফায়েল আহমেদের সহধর্মিণীর রোগমুক্তি কামনা করে লালমোহনে আওয়ামী লীগের দোয়া ও মোনাজাত মুজিববর্ষ উপলক্ষে তজুমদ্দিনে ১৮ পরিবারের কাছে ঘরের চাবি ও জমির দলিল হস্তান্তর করেন সড়ক দূর্ঘটনায় আহত আ’লীগ নেতার সুস্থতায় এমপি শাওন’র দোয়া কামনা প্রধানমন্ত্রী সারা দেশের সাথে একযোগে পটুয়াখালীতেও ঘর হস্তান্তর করেন বাউফলের ১০ গৃহহীন পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর গৃহ হস্তান্তর পৌরসভা নির্বাচন, কলাপাড়ায় অধিকাংশ প্রার্থীর বিরুদ্ধে ফৌজদারী অপরাধের মামলা সাংবাদিকদের ওপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে ভাণ্ডারিয়ায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ শোক সংবাদ – প্রফেসর আব্দুল হালিম উকিল প্রধানমন্ত্রীর উপহার ঘর পেলো আগৈলঝাড়ার ৩৬ পরিবার আগৈলঝাড়ায় কলেজ ছাত্রীর আত্মহত্যা
আরও একবছর এমসিসির সভাপতি কুমার সাঙ্গাকারা     

আরও একবছর এমসিসির সভাপতি কুমার সাঙ্গাকারা     

স্পোর্টস ডেস্ক ॥ মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাবের (এমসিসি) প্রথম অব্রিটিশ সভাপতি কুমার সাঙ্গাকারা। বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস সৃষ্ট বর্তমান অস্বাভাবিক পরিস্থিতিতে আরও একবছর এই পদে থেকে যাচ্ছেন শ্রীলঙ্কার সাবেক উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান ও অধিনায়ক।

ক্রিকেট তীর্থ বলে খ্যাত লর্ডস মাঠের মালিক এবং ক্রিকেট আইনের রক্ষক ক্লাবটির সভাপতির মেয়াদ সাধারণত একবছর। এর আগে দুটি বিশ্বযুদ্ধের কারণেই সভাপতির মেয়াদ এক বছরের বেশি ছিল। সেই ১৮২১ সাল থেকে এমসিসি ১৬৮ জন সভাপতি পেয়েছে। কিন্তু কুমার সাঙ্গাকারা এই লম্বা তালিকায় মাত্র তৃতীয় ব্যক্তি যার মেয়াদ হতে যাচ্ছে এক বছরের বেশি।

‘কোভিড-১৯ করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বিশ্ব ক্রিকেট থমকে যাওয়াতেই কমিটি সুপারিশ করেছে যে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১ পর্যন্ত সাঙ্গাকারাকে ক্লাবের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালনের জন্য আহ্বান করা হোক, যিনি তার কার্যকাল শুরু করেন ২০১৯ সালের ১ অক্টোবর।’- বিবৃতিতে জানিয়েছে এমসিসি। সদস্যদের এই প্রস্তাব অবশ্য আগামী ২৪ অনুষ্ঠেয় বার্ষিক সাধারণ সভায় অনুমোদিত হতে হবে।

সাঙ্গাকারার আগে যে দুজন এমসিসির সভাপতি পদে একবছরের বেশি সময় দায়িত্ব পালন করেছেন তারা হলেন লর্ড হক ( ১৯১৪-১৮, প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়) এবং স্ট্যানলি ক্রিস্টোফারসন (১৯৩৯-৪৫, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়)। এমসিসির সঙ্গে নিবিড়ভাবে যুক্ত সাঙ্গাকারার ২০১১ সালে দেওয়া এমসিসি কাউড্রে ভাষণটি স্মরণীয় হয়ে আছে। পরের বছরই তিনি এমসিসির জীবন-সদস্য হন এবং যোগ দেন ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট কমিটিতে। গত ফেব্রুয়ারি মাসে তার নেতৃত্বেই ১৯৭৩ সালের পর প্রথমবারের মতো পাকিস্তান সফরে যায় এমসিসি। এই সফরের উদ্দেশ্য আন্তর্জাতিক দলগুলোকে আবারও পাকিস্তান সফরে যেতে উৎসাহিত করা। ২০০৯ সালে পাকিস্তান সফররত শ্রীলঙ্কা টেস্ট দলের বাসে জঙ্গি হামলা হয়। সাঙ্গাকারাও ছিলেন সেই শ্রীলঙ্কা দলে। ওই হামলার পর ধরতে গেলে এক দশক আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নির্বাসিত ছিল পাকিস্তানে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com