শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৪:৩৫ পূর্বাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
আমতলীতে ৬ শতাধিক কাঁচা সড়ক বেহাল বর্ষা মৌসুমে মানুষের হেটে চলাও দায়

আমতলীতে ৬ শতাধিক কাঁচা সড়ক বেহাল বর্ষা মৌসুমে মানুষের হেটে চলাও দায়

আমতলী প্রতিবেদক ॥ আমতলী উপজেলায় ৭টি ইউনিয়নের ৬ শতাধিক কাঁচা সড়কের ১৭শ’ ১ কিলোমিটার পথ বেহাল অবস্থায় পরিনত হয়েছে। বর্ষা মৌসুমের শুরু থেকেই এসকল কাঁচা সড়কে বর্ষার পানি জমে হাটু পরিমান কাদার সৃষ্টি হয়েছে। এত ভয়াবহ পরিমান কাঁদা জমার ফলে এসকল সড়ক দিয়ে এখন পায় হেটে চলা চল করাও দায় হয়ে পরেছে। সড়কগুলো সংস্কার করে পাঁকা করার দাবী জানিয়েছে ভূক্তভোগী গ্রাম বাসীরা। আমতলী উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল (এলজিইডি) কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, আমতলী উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার অভ্যন্তরে মোট ২ হাজার ৬শ’ ২২ কিলোমিটার সড়ক রয়েছে। এর মধ্যে ৮শ’ ২৭ কিলোমিটার সড়ক পাকা এবং ৭৯ কিলোমিটার সড়ক ইট বিছানো রয়েছে। কাঁচা সড়ক রয়েছে (মাটির) ১হাজার ৭শ’ ১ কিলোমিটার। আমতলী উপজেলা পরিষদ কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ৬২৫ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের আমতলী উপজেলায় ১টি পৌরসভা ও ৭টি ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে। পৌরসভার যোগাযোগ ব্যবস্থা ভাল থাকলেও বেহাল অবস্থায় রয়েছে গ্রাম পর্যায়ের সড়ক গুলো। উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে ২শ’টি গ্রাম রয়েছে। এসকল গ্রামে ছোট বড় মিলে প্রায় ৮শতাধিক সড়ক রয়েছে এসকল সড়কের মধ্যে ৬ শতাধিক সড়ক এখনও কাঁচা অবস্থায় রয়েছে। কাঁচা সড়কের দৈর্ঘ্য ১হাজার ৭শ’ ১ কিলোমিটার। চলতি বর্ষা মৌসুমে এসকল কাাঁচা সড়কে মানুষের চলাচলে বেহাল দশায় পরিনত হয়েছে। অনেক এলাকা সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে সড়কে পানি জমে হাটু পরিমান কাদায় পরিনত হয়েছে। এসল সড়ক দিয়ে মানুষের পায় হেটেও চলাচল দায় হয়ে পড়েছে।
উল্লেখযোগ্য কাঁচা সড়ক গুলো হল হলদিয়া ইউনিয়নের হলদিয়া গ্রামের কাসেম মোল্লার বাড়ী থেকে জুলেখার স্লুইস গেট পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, উত্তর তক্তা বুনিয়া গ্রামের বলুইবুনিয়া বাঁধ থেকে থেকে লক্ষী নিজাম উদ্দিন ম্বেম্বারের বাড়ি পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার, উত্তর তক্তাবুনিয়া সোনা মোল্লার বাড়ী থেকে ফুলগাজীর বাড়ি পর্যন্ত ১ কিলোমিটার,গুরুদল এ্যাভোকেট এমএ কাদের মিয়ার বাড়ি থেকে আলতাফ হোসেন মোল্লার বাড়ী পর্যন্ত ১ কিলোমিটার, গুরুদল মাদরাসা থেকে জেবি সেনের হাট মাধ্যমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, চিলা আফেল উদ্দিন মৃধার বাড়ী থেকে চিলা হাট পর্যন্ত ৪কিলোমিটার, আফেল উদ্দিন মৃধা বাড়ী থেকে রামজী খালের পার হয়ে রামজী হাট পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার, রামজী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে অফিস বাজার পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, পূর্ব চিলা আফছের হাওলাদার বাড়ী থেকে মুন্সির বাড়ী পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার, গুরুদল স্কুল থেকে আবুল হাওলাদার বাড়ী পর্যন্ত ১ কিলোমিটার, তক্তাবুনিয়া জুলেখার স্লুই গেট থেকে দফাদার সেতু পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার,উত্তর তক্তাবুনিয়া দাদন শরীফের বাড়ী থেকে মুসসুর হাজী বাড়ী পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, উত্তর তক্তাবুনিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে কাঠালিয়া বাজার পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার, রাওঘা শাহআলম ম্বেম্বারের বাড়ি থেকে ওয়াপদা পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার, তক্তাবুনিয়া দফাদার সেতু থেকে সুবন্দি পর্যন্ত ৬ কিলোমিটার, সুবন্ধি বাঁধ থেকে চর রাওঘা পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার, তক্তাবুনিয়া অফিস বাজার থেকে কানাই মৃধা বাড়ি পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, সোনাউটা স্লুইস গেট থেকে সোনাউটা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যায় পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, পূর্ব চিলা ইবতেদায়ী মাদরাসা থেকে পূর্ব চিলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, পূর্ব চিলা আক্কাস খানের বাড়ী থেকে হানিফ ডাক্তারের বাড়ি পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, পূর্ব চিলা শাহজাহান খানের বাড়ি থেকে চিলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যায় পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার, পূর্ব চিলা আইয়ূব খানের বাড়ী থেকে চিলা হাসেম বিশ্বাস মাধ্যমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত সাড়ে ৩ কিলোমিটার, চিলা বিশ্বাসের বাজার থেকে খাসতবক সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় হয়ে পশ্চিম চিলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার, চিলা টুঙ্গা সাঁকো থেকে আলম গাজীর বাড়ি পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার সড়ক কাঁচা।
চাওরা ইউনিয়নে পাতাকাটা মজিদ শরীফের বাড়ী থেকে নসু মাতুব্বরের বাড়ী পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, পাতাকাটা যুগিয়ার সেতু থেকে ফকর উদ্দিন সিকদার বাড়ি পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, মো. নজরুল ইসলাম তালুকদারের বাড়ি থেকে বেতমোর মাদরাসা পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, ঘটখালী স্লুইস গেট থেকে বেতমোর মাদরাসা পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার, চাওরা বেতমোর মাদরাসা থেকেফকির বয়াতি বাড়ি পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, পূর্বপাতাকাটা নুরুল হক নি¤œ মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে জয়নাল সিকদারের বাড়ি পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, আমড়া গাছিয়া স্লুইস গেট থেকে মুন্সি বাড়ি পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, আনিস তালুকদারের বাড়ি থেকে মতলেব ঘরামির বাড়ি পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, পাতাকাটা রুস্তুম মাতুব্বর বাড়ী থেকে হাফেজ মাতুব্বর বাড়ী পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, চন্দ্রা বাঁধ থেকে চন্দ্র বাজার পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, পতিকিাটা মকবুল মাতুব্বর বাড়ী থেকে ছালাম মাতুব্বর বাড়ী পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার সড়ক কাঁচা। কুকুয়া ইউনিয়নের আমড়া গাছিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে চরখালী কমিউনিটি ক্লিনিক পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার, কালিপুরা তালুকদার বাড়ী থেকে মন্টু মাষ্টারের বাড়ী পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, কালিপুরা তালুকদার বাড়ী থেকে মহাসড়ক পর্যন্ত ১ কিলোমিটার, কৃষ্ণনগর প্যাদা বাড়ি থেকে আতাহার হাওলাদার বাড়ী পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, পশ্চিম কুকুয়া নিজকাটার পোল তেকে আমজেদ হাওলাদার বাড়ী পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, কেওয়া বুনিয়া গনি মাষ্টারের বাড়ীর সামনে মহাসড়ক থেকে পূর্ব দিকে খালেক মাষ্টারের বাড়ী পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, মহিষকাটা থেকে ওয়াপদা হয়ে ব্রীক ফিল্ড পর্যন্ত৫ কিলোমিটার,কেওয়া বুনিয়া স্কুলের সামনে থেকে হাচান প্যাদার বাড়ি পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, কেওয়া বুনিয়া হাজী আফাজ উদ্দিনের বাড়ী থেকে ওয়াপদা পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, পূর্ব চুনাখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে খাকদান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত ২ কিলোমিটার,পশ্চিম চুনাখালী আনোয়ার ডাক্তারের বাড়ী থেকে কুকুয়া হাট পর্যন্ত, কেওয়া বুনিয়া ব্রীক ফিল্ড থেকে ওয়াপদা পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, কুকুয়া হাট ওয়াপদা হয়ে সোনাখালী চৌকিদার বাড়ী পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার সদক কঁচা।
আরপাঙ্গাশিয়া সফিজ উদ্দিন হাওলাদার বাড়ী থেকে কাদের মীর বাড়ি পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, ঘোপখালী মস্তফা তালুকদারের বাড়ী থেকে বালিয়াতলী ওয়াপদা পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, ঘোপখালী আবুল রাজ্জাক এর বাড়ী থেকে ঘোপখালী কালভাট পর্যন্ত ১ কিলোমিটার, চরকগাছিয়া তালগাছিয়া সড়ক থেকে সোমবাড়িয়া হাট পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার, চরক গাছিয়া হাফেজিয়া মাদরাসা থেকে সেরাজ হাওলাদারের বাড়ী পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, উত্তর চরকগাছিয়া মিলন হাওলাদারের বাড়ী থেকে জালাল শরীফের বাড়ী পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, ঘোপখালী চালাম তালুকদারের বাড়ী থেকে ভায়লাবুনিয়া স্কুল পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, ঘোপখালী স্টান্ড থেকে জাকির মাস্টারের বাড়ি পর্যন্ত ৬ কিলোমিটার, যুগয়া সেতু থেকে আরপাঙ্গাশিয়া পুরাতন লঞ্চঘাট পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার, তারিকাটা মাদরাসা থেকে পাতাকাটা সুলতান হাওলাদারের বাড়ী পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার,আরপাঙ্গাশিয়া বজার থেকে পশুর বুনিয়া পর্যন্ত ৮ কিলোমিটার, পশুর বুনিয়া থেকে হাচান কাজীর বাড়ি পর্যন্ত ৬ কিলোমিটার কাঁচা সড়ক।
আমতলী ইউনিয়নের ছোট নীলগঞ্জ আটকারী বাঁধ ঘাট থেকে আকন বাড়ী পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, মাইঠা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে মহাসড়ক পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, উল্টাখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পুজাখোলা ওয়াপদা পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, পুজাখোলা স্লুই গেট থেকে টিয়াখালী হাট পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, উল্টাখালী নাসির মেম্বারের বাড়ি থেকে আলহাজ্ব মো. নুরুল ইসলাম মৃধা বাড়ী পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, বান্দ্রা থেকে উল্টাখালী পর্যন্ত ২ কিলেমিটার, সেকান্দারখালী মহাসরক ইদ্রিস হাওলাদারের বাড়ী থেকে মৃধা বাড়ি পর্যন্ত ২ কিলোমিটারম, বান্দ্রা সমিল থেকে টিয়াখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, বান্দ্রা স্টান্ড থেকে পশ্চিম দিকে ওয়াপদা হয়ে চারঘাট মহাসড়ক পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার। ওয়াপদাকল্যানপুর স্টান্ড থেকে কড়ইবুনিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার, টিয়াখালী মরহুম ছত্তার মৃধা ম্বোরের বাড়ি থেকে খুরিয়ার খেয়াঘাট পর্যন্ত ৬ কিলোমিটার, উত্তর টিয়াখালী ওয়াপদা হয়ে টিয়াখালী মাদরাসা পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, চলাভাঙ্গা মজনু মৃধার বাড়ী থেকে ছোটনীলগঞ্জ হাইস্কুল পর্যন্ত ৫ কিলেমিটার, ছোটনীলগঞ্জ হাইস্কুল থেকে মরহুম এ্যাভোকেট গাজী আমির হোসেন বাড়ী পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, নাচনা পাড়া মনির তালুকদারের বাড়ি থেকে শিয়ালিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, পুজাখোলা মাওলানা মন্নান এর বাড়ী থেকে টিয়াখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, চারঘাট থেকে বান্দ্রা বাজার পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার কাঁচা সড়ক। আমতলী সদর ইউপি চেয়ারম্যান মো. মোতাহার উদ্দিন মৃধা বলেন, মানুষের উন্নয়নের জন্য যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন ঘটাতে হবে। কাঁচা সড়কের কারনে আমার ইউনিয়নে যোযোগ ব্যবস্থায় অনেক সমস্যা হচ্ছে। আশা করি যে সকল কাঁচা সড়ক রয়েছে তা দ্রুত পাাঁকা করা হবে।
গুলিশাখালী খেকুয়ানি বাজারের স্লুইস গেট থেকে ওয়াপদা হয়ে খেকুয়ানি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় হয়ে আঙ্গুলকাটা স্লুইস গেট পর্যন্ত ৮ কিলোমিটার, খেখুযানি স্লুইস গেট থেকে আগুলকাটা হারুন সিকদার বাড়ী পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার, গুলিশাখালী ইউনিয়ন পরিষদ থেকে গোছখালী মাজার পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, কালিবাড়ী থেকে হাতেমিয়া মাদরাসা পর্যন্ত ৬ কিলোমিটার, ডালাচারা জলিল মাষ্টারের বাড়ী তেকে কলাগাছিয়া য়োল হাওলাদারের বাড়ী পর্যন্ত ৪ কিলেঅমিটার, গোছখালী বারেক গাজীর বাড়ী থেকে উত্তর পূর্ব কলাগাছিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত ৫ কিলেঅমিটার,কালিবাড়ী শাহ আলম মাওলানা বাড়ী থেকে মন্টু চৌকিদারের বাড়ী পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার, ফকিরখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পশ্চিম কলাগাছিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, গুলিশাখালী গ্রামের কালু গাজীর বাড়ী থেকে মাওলানা আব্দুল মন্নানের বাড়ী পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, ডালাচারা স্লুইস গেট থেকে জাহাঙ্গীর মাষ্টারের দোকান পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার কাঁচা সড়ক। গুলিশাখালী ইউপি চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট আলহাজ্ব মো. নুরুল ইসলাম বলেন, যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নের জন্য কাঁচা সড়ক দ্রুত পাঁকা করতে হবে। আঠার গাছিয়া ইউনিয়নের আঠার গাছিয়া অনীল শীলের বাড়ি থেকে গণী প্যাদার বাড়ী পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, দরিকাটা পাকা সেতু থেকে উত্তর গোডাঙ্গা পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, মুন্সির হাট থেকে উত্তর গেরা বুনিয়া কালাম মোল।রঅর বাড়ি পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার, চাউলা বাজার থেকে তাহের তালুকদারের বাড়ি পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, মুন্সির হাট সেতু থেকে কাসেম হাওলাদারের বাড়ী পর্যন্ত ২ কিলোমিটার, আমতলী গাজীপুর এফআরবি সড়ক থেকে মোনা গাজী বাড়ী পর্যন্ত ২ কিলোমিটার কাঁচা সড়ক। আঠার গাছিয়া ইউপি চেয়ার চেয়ারম্যান মো. হারুন অর রশিদ বলেন, আমার ইউনিয়নে যে কাঁচা সড়ক রয়েছে তা দিয়ে এই বর্ষা মৌসুমে মানুষ তো দুরের কথা কাঁদার কারনে কোন প্রাণীও হাটতে পারে না। আমতলী উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও উপজেলা নাগরিক ফোরামের সভাপতি এ্যাডভোকেট এম এ কাদের মিয়া বলেন, নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে হলে উপজেলার সকল কাঁচা সড়ক দ্রুত পাাঁকা করতে হবে। এবং যে সকল এলাকায় কাঁচা সড়কও নেই সেখানে সড়কের ব্যবস্থা করতে হবে। আমতলী উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রকৌশলী মো. মনোয়ারুল ইসলাম জানান, আমতলী উপজেলায় মোট ২ হাজার ৬শ’ ২২ কিলোমিটার সড়ক রয়েছে। এর মধ্যে ১ হাজার ৭শ’ ১ কিলোমিটার সড়ক কাঁচা অবস্থায় রয়েছে। কাঁচা এ সড়কগুলো পর্যায়ক্রমে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পাঁকা করা হবে।
আমতলী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গোলাম সরোয়ার ফোরকান বলেন, উপজেলা পরিষদের উন্নয়ন সমন্বয় সভায় যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নের জন্য করনীয় নিয়ে আলোচনা করে সিদান্ত নেওয়া হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com