বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৩:৩৯ অপরাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
বরিশালের ছাত্রদলে দীর্ঘদিন পর কমিটি গুঞ্জন

বরিশালের ছাত্রদলে দীর্ঘদিন পর কমিটি গুঞ্জন

*নগরীর ৫টি কলেজ ও ২৬ টি ওয়ার্ডে নতুন কমিটি হবে আগামী দুই মাসে
*১৫ বছর পর উপজেলাগুলোতে কমিটি
*বিবাহিত -অছাত্র কেউ পদ পাবেন না
*যেকোন সময়ে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে কমিটি ঘোষণা

দীর্ঘ এক যুগেরও বেশি সময় পর বরিশাল মহানগর ও জেলার আওতাধীন ছাত্রদলের বিভিন্ন ইউনিটের কমিটি হতে যাচ্ছে। একই সঙ্গে সংগঠনটির নতুন কমিটি হবে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে। সবকটি ইউনিটে আহবায়ক কমিটি দেবার কথা ভাবছেন নেতৃবৃন্দ। ইতোমধ্যে সম্ভাব্য পদপ্রার্থীদের কাছ থেকে জীবনবৃত্তান্ত সংগ্রহ শুরু হয়েছে। আর নতুন কমিটি করতে গত মার্চে কেন্দ্র থেকে প্রকাশিত বিভিন্ন ইউনিটের কর্মীদের জন্য পদ প্রার্থিতার বৈশিষ্ট্য জোরালোভাবে অনুসরণ করা হবে। সেই মোতাবেক ইউনিটগুলোর নেতৃত্বে অবিবাহিত, নিয়মিত ছাত্র এবং ২০০৫ সালের পরে মাধ্যমিক (এসএসসি) পাস কর্মীরাই আসবেন বলে জানিয়েছেন বর্তমান দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দ। আর দীর্ঘদিন পর জেলা ও মহানগরের বিভিন্ন ইউনিটে নতুন কমিটি হবার সম্ভাবনাকে দলের জন্য ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন সংগঠনটির সাবেক নেতারাও।
বরিশাল মহানগরীর আওতাধীন বিভিন্ন কলেজ ও অন্যান্য সাংগঠনিক ইউনিটে সর্বশেষ ২০০৩ সালে কমিটি করা হয়েছিলো। এরমধ্যে গতবছর নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডের মধ্যে দুই, চব্বিশ, উনত্রিশ ও ত্রিশ নম্বর ওয়ার্ডে কমিটি হলেও বাকি ২৬ টি ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরা এতদিন পদবঞ্চিত ছিলেন। এসব ওয়ার্ড সহ বরিশাল সরকারি ব্রজমোহন (বিএম) কলেজ, সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজ, সরকারি বরিশাল কলেজ, বরিশাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ও বরিশাল ইসলামিয়া কলেজে আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই কমিটি ঘোষণা করবে মহানগর ছাত্রদল।
অন্যদিকে বরিশাল জেলা ছাত্রদলের আওতাধীন দশটি উপজেলা সহ পৌরসভা ও ইউনিয়নগুলোতে সর্বশেষ কমিটি হয়েছে ২০০৫ সালে। এরমধ্যে ২০১৫ সালে জেলার মেহেন্দিগঞ্জে উপজেলা এবং সেখানকার পৌরসভা ও ইউনিয়ন ছাত্রদলের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। তবে বাদবাকি ৯টি উপজেলার কোন পর্যায়ে দীর্ঘ ১৫ বছরেও নতুন কমিটি গঠন হয় নি। আর বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাকালীন কমিটি হয়েছিল ২০১৬ সালে। এই কমিটির বেশিরভাগ নেতারই বর্তমানে ছাত্রত্ব নেই।
এ ব্যাপারে বরিশাল মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবীর জানান, তাদের আওতাধীন ৩০টি ওয়ার্ড ও ৮ টি কলেজ এবং ৪টি থানা রয়েছে। এগুলোর মধ্যে সাংগঠনিক কার্যক্রম ও কর্মীদের যোগ্যতা মূল্যায়ন করে ২৬ টি ওয়ার্ড ও ৫টি কলেজে খুব শীঘ্রই আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করবেন তারা। তিনি বলেন, আমরা চেষ্টা করছি দীর্ঘদিনের ত্যাগী নেতা কর্মীদের যত দ্রুত সম্ভব মূল্যায়ন করার। আগামী দুই মাসের মধ্যেই নগরীর জাতীয়তাবাদী ছাত্র শক্তিকে পুনর্গঠিত করতে পারবো বলে আশা করছি।
অন্যদিকে বরিশাল জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মাহফুজুল আলম মিঠু বলেন, কেন্দ্র থেকে চলতি বছরের মার্চ মাসে সকল ইউনিটে পদ প্রত্যাশীদের জন্য বিশেষ নিয়ম করে দেয়া হয়েছে। সেই নিয়ম অনুযায়ী কোনো বিবাহিত ব্যক্তি ছাত্রদলের নেতৃত্বে আসতে পারবেন না। একই সঙ্গে বয়সের ক্ষেত্রে ২০০৫ সালের আগে এসএসসি পরীক্ষা দেওয়া কাউকে কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত না করার নির্দেশনা এসেছে। সাথে সাথে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর কমিটিতে অছাত্র কেউ স্থান পাবেন না। তিনি আরো উল্লেখ করেন, এসব বৈশিষ্ট্য নির্ভুলভাবে যাচাই বাছাইয়ের মাধ্যমে কমিটিগুলো করার চেষ্টা করা হচ্ছে। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী সপ্তাহেই উপজেলার বিভিন্ন পর্যায়ের কমিটি অনুমোদন দেয়া শুরু হবে।
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সভাপতি রেজা শরীফ বলেন, করোনা পরিস্থিতি সৃষ্টি না হলে এতদিনে আমরা নতুন নেতৃত্বের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করতাম। কেন্দ্রীয় নীতিমালা অনুযায়ী যোগ্য প্রার্থীদের হাতে দলের ভার দ্রুতই যেকোন সময়ে ছেড়ে দেয়া হবে। তাঁর কথার সঙ্গে একমত পোষণ করে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক হাসান আল হাসিব জানান, দেশের বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজগুলোর পদ প্রার্থীদের বৈশিষ্ট্য হিসেবে কেন্দ্র থেকে কিছু নিয়ম ঠিক করে দেয়া হয়েছে। সেগুলো মেনে কাউন্সিলের মাধ্যমে নতুন কমিটি হবার কথা ছিল। করোনা পরিস্থিতিতে সেই প্রক্রিয়া আপাতত স্থগিত হলেও দ্রুতই নতুন কমিটি করা হবে।
আর কমিটি গঠনের দীর্ঘসূত্রিতা ভেঙে নিয়মিত কাউন্সিলের মাধ্যমে কমিটি করার আহবান জানান সাবেক ছাত্রদল নেতা ও বরিশাল জেলা যুবদলের সভাপতি পারভেজ আকন বিপ্লব। তিনি বলেন, আমি যখন ছাত্রদলের দায়িত্বে ছিলাম তখন জেলার সমস্ত ইউনিটগুলোতে নতুন কমিটি উপহার দিয়েছি। দলীয় কার্যক্রম গতিশীল রাখতে নিয়মিত কমিটি দেবার বিকল্প নেই। যোগ্য প্রার্থীদের গুরুত্ব দিয়ে প্রতিটি সাংগঠনিক ইউনিটে নতুন কমিটি করে বরিশালের জাতীয়তাবাদী শক্তিতে নতুন জোয়ার সৃষ্টি করবে এমনটাই বর্তমান নেতৃত্বের কাছে প্রত্যাশা।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com