শনিবার, ০৬ অগাস্ট ২০২২, ০৮:০৪ পূর্বাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
শেখ হাসিনা এই দুটি হত্যাকান্ডের মধ্যে দিয়ে নিজের পায়ে কুড়াল মেরেছে-গয়েশ্বর ভোলায় পুলিশের বর্বরোচিত হামলায় নুরে আলম ও গুলিতে আব্দুর রহিম মৃধার মৃত্যুতে সরফুদ্দিন সান্টুর শোক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের উপ-স্বাস্থ্য ও চিকিৎসাসেবা সম্পাদক হলেন বরিশালের ডাঃ রাহাত আনোয়ার চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধার ক্ষোভ: “মালাউনের বাচ্চা” এখানে কেন? বাংলার টাইগার বাকেরগঞ্জ জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে ১ জন কে কুপিয়ে জখম সিলেটের বানভাসি মানুষের সাহায্যার্থে; বিএনপি মহাসচিবের হাতে ভোলা জেলা বিএনপি সভাপতির চেক হস্তান্তর বরিশালের উত্তর জনপদে যুবদলের ১২ টা বাজিয়ে ছাড়বে দুলাল, হাইকমান্ড পদক্ষেপ না নিলে প্রতিহতের ঘোষণা বরিশালের আলো’র সম্পাদক মোস্তফা কামাল জুয়েল’র পিতার মৃত্যুতে দখিনের খবর’র শোক দৈনিক বরিশালের আলো পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক মোস্তফা কামাল জুয়েল এর পিতার ইন্তেকাল, বাংলাদেশ সম্পাদক ফোরাম’র বরিশাল’র শোক

রোদ-বৃষ্টি মাথায় নিয়েই দিতে হচ্ছে করোনার নমুনা

রোদ-বৃষ্টি মাথায় নিয়েই দিতে হচ্ছে করোনার নমুনা

করোনার শুরুতে ঢাকার দোহার উপজেলার করোনা রোগীদের সরকারি হাসপাতালের ভিতর থেকেই সংগ্রহ করা হতো করোনার নমুনা। দুই মাস আগে কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তে সেখান থেকে ঢাকা-দোহার সড়কের বটিয়া এলাকায় প্রস্তাবিত একটি হাসপাতালে তা স্থানান্তর করা হয়। এখানে নেই রোগীদের বসার কোনো সুব্যবস্থা। মাথার উপর কোনো ছাদ না থাকায় প্রচণ্ড রোদের মধ্যেই দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। বৃষ্টি এলে দৌড়ে গিয়ে আশ্রয় নিতে হয় আশপাশের কোনো দোকান কিংবা বাড়িতে। তবে করোনার ভয়ে রোগীদের ক্ষণিকের জন্য আশ্রয় দিতে চায় না অনেকে। এমন দুর্ভোগের মধ্যেই রোগীদের করোনার নমুনা দিতে হচ্ছে। বয়স্ক ও গুরুত্বর অসুস্থ রোগী দাঁড়িয়ে থাকতে থাকতে আরো অসুস্থ হয়ে পড়ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। আবার অনেকে দাঁড়িয়ে থাকতে না পেরে মাটিতে পা লেপটে বসে পড়েন। রোগীদের অভিযোগ, সরকারি হাসপাতালে টেষ্ট করানো হলে আমাদের জন্য ভালো হতো।

সরেজমিনে বটিয়া করোনা সেন্টারে গিয়ে দেখা গেছে, রোগীরা নমুনা দেয়ার জন্য রাস্তার পাশে দাড়িয়ে রয়েছে। বাইরে থেকে গেটে তালা লাগানো থাকায় ভেতরে প্রবেশ করতে পারছে না। ভুক্তভুগী একজন রোগী জানান, আমাদের সকাল ৮টার মধ্যে এখানে থাকার কথা বলা হলেও তাদের খবর নেই। রোগীদের এমনই নানা ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে করেনা টেস্ট দিতে এসে।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জসিম উদ্দিন জানান, আমাদের ফান্ড না থাকায় আপাতত কিছু করতে পারছি না। ফান্ড হলে একটি টিনশেড ও বসার জন্য চেয়ারের ব্যবস্তা করা হবেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com