বুধবার, ২০ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:৫৬ পূর্বাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
বরিশাল অঞ্চলের ২৭ নৌপথে ৪৭০ কিমি দৈর্ঘ্যে খননের প্রস্তাবনা পটুয়াখালীতে বিড়াল উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিস নলছিটিতে জেলা পরিষদ সদস্যের বিরুদ্ধে বাঁধ নির্মাণের অভিযোগ আফসার’র খুনীদের গ্রেফতার করে নির্বাচনে সুষ্ঠ পরিবেশ ফিরিয়ে আনুন, জানাযা নামাজে -পৌর মেয়র কামাল চরফ্যাসনে স্ত্রীর সাথে অভিমানে স্বামীর বিষপানে মৃত্যু আমি হব পৌরসভার পাহারাদার…….নৌকা প্রতিকের মেয়র প্রার্থী মোঃ হারিছুর রহমান বছরের মাঝামাঝি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু ঝালকাঠি ছাত্রলীগ নেতার পিতা ভুয়া মেজর গ্রেপ্তার বরিশাল মহানগর ও জেলা ছাত্রদলের আয়োজনে আলোচনা সভা ও দোয়া-মোনাজাত বাকেরগঞ্জ সাংবাদিকদের সাথে নবাগত ওসির মতবিনিময়
চিত্রনায়িকা তমা মির্জার বিরুদ্ধে স্বামীর মামলা

চিত্রনায়িকা তমা মির্জার বিরুদ্ধে স্বামীর মামলা

চিত্রনায়িকা তমা মির্জার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন তার স্বামী হিশাম চিশতি। রাজধানীর বাড্ডা থানায় তার বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টা মামলা হয়েছে বলে জানা গেছে।মামলাটিতে তমা মির্জাকে এক নম্বর আসামি করা হয়েছে। এ ছাড়া তার বাবা-মা, ভাই এবং অজ্ঞাতপরিচয় একজনকেও আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, মির্জা ফারজানা ইয়াসমিন তমা (তমা মির্জা) ও হিশাম চিশতির প্রায় দেড় বছর আগে বিয়ে হয়। বিয়ের পর বিভিন্ন সময়ে বাবা-মায়ের প্ররোচনায় হিশামের কাছ থেকে মোট ২০ লাখ টাকা ধার হিসেবে নেন তমা। সেই ধারের টাকা ফেরত চাইলে কালক্ষেপণ শুরু করেন। এ পরিস্থিতিতে গত ২৯ সেপ্টেম্বর হিশাম কানাডা থেকে দেশে এসে তমাকে তার নিজের বাসায় এসে থাকতে বলেন। কিন্তু তিনি নানা অজুহাতে তার বাসায় না গিয়ে বাবার বাসাতেই থাকতে থাকেন।

এরপর হিশাম শ্বশুরবাড়িতে গেলে তার সঙ্গে তমাসহ বাড়ির সবাই খারাপ আচরণ শুরু করেন। একপর্যায়ে গত ৫ ডিসেম্বর রাত ৩টার দিকে তমা মির্জার বাবার বাড্ডার বাসায় যেতে বলা হয় হিশামকে। সেখানে নানা বিষয়ে আলোচনার পর ধার নেওয়া ২০ লাখ টাকা চাইলে বাসার সদস্যদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় তার। এর একপর্যায়ে বাড়ির সদস্যরা ক্ষিপ্ত হয়ে হিশামের ওপর আক্রমণ করেন। ওড়না দিয়ে পেঁচিয়ে তাকে ‘খুন’ করার চেষ্টা করা হয়। এ ছাড়া লোহার চেয়ার দিয়ে আঘাত করলে ডান হাতে গুরুতর আঘাত পেয়ে মেঝেতে পড়ে যান হিশাম। তিনি চিৎকার শুরু করলে বাসার নিচের দারোয়ান ও আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এ বিষয়ে তমা মির্জা দৈনিক আমাদের সময় অনলাইনকে বলেন, ‘বিষয়টি এখন সে অন্যভাবে উপস্থাপন করছে, আমার নামে সে মামলা করেছে পরে। আমি তার নামে আগে মামলা করেছি বাড্ডা থানায়। নারী নির্যাতন, যৌতুক ও সাইবার ক্রাইমে মামলা করেছি চলতি মাসের ৬ তারিখ। সে বাচাঁর জন্য মিথ্যা মামলার আশ্রয় নিয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এর আগেও তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছি। সে বিভিন্ন সময় নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। বিভিন্ন লোকজন নিয়ে এসে হট্টগোল করে, এমনকি গায়েও হাত দেয়। তাই নারী-নিয়াতন, যৌতুক, সাইবার ক্রাইম মামলা দায়ের করা হয়েছে। সে যদি নিরাপরাধ হতো তাহলে আমার মামলা করার পরদিন মামলা করত না।।’

‘আমার নামে সে মিথ্যা মামলা সাজিয়েছে। এরপরের দিন সে দেশত্যাগ করেছে’, যোগ করেন তমা।

বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. পারভেজ মামলরা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়াঝাটি। এক পর্যায়ে মারামারিও হয়েছে। পরে তারা দুজনেই থানায় আলদা আলাদা দুইটি মামলা দায়ের করেছেন।’

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com