রবিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২০, ০৯:৪৯ পূর্বাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
ববি’র আন্দোলন স্থগিত ॥ আজ থেকে ক্লাসে ফিরবে শিক্ষার্থীরা

ববি’র আন্দোলন স্থগিত ॥ আজ থেকে ক্লাসে ফিরবে শিক্ষার্থীরা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভিসির পদত্যাগের দাবিতে টানা ১১দিন কর্মসূচি পালন শেষে শনিবার দুপুরে আন্দোলন স্থগিত ঘোষণা করেছে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। আজ রবিবার থেকে তারা ক্লাসে ফিরে যাবেন। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে উদ্বুদ্ধ পরিস্থিতি সমাধানে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামিম এমপি এবং বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ, প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (ববি) প্রশাসনের সাথে বৈঠক শেষে এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।
শনিবার বেলা ১১টায় বরিশাল সার্কিট হাউজ হলরুমে বিভাগীয় কমিশনারের আয়োজনে বৈঠকের আয়োজন করা হয়। বৈঠকে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবঃ) জাহিদ ফারুক শামিম এমপি, বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ মোশাররফ হোসেন, জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমানসহ গন্যমান্য ব্যক্তিদের সহায়তায় প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেন।
বৈঠকের শুরুতে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক শামিম বলেন, অনেক চেষ্টার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের দক্ষিণাঞ্চলবাসীর জন্য বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় করে দিয়েছেন। আমরা কখনই চাইবো না আমাদের এ বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে কেউ কোনো ষড়যন্ত্র করুক। সার্বিক দিক বিবেচনা করে দ্রুত আমরা সব সমস্যার সমাধান করে ববি’কে সচল করবো।
সভায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিদের কাছ থেকে অভিযোগ শুনে প্রতিমন্ত্রী বলেন-প্রধানমন্ত্রী উপচার্যের বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন। এ ব্যাপারে তিনি (প্রতিমন্ত্রী) প্রধানমন্ত্রীর সাথে কথা বলবেন বলেও শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করেছেন। দুপুরের সভা শেষে আজ রবিবার থেকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করার সিদ্ধান্তের ঘোষণা করা হয়েছে। এদিকে সভা চলাকালীন সময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা সভাস্থলের বাহিরে অবস্থান নিয়ে ভিসি’র পদত্যাগের দাবিতে বিভিন্ন শ্লোগান দিতে থাকেন।
উল্লেখ্য, ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের অবগত না করায় প্রতিবাদ করেন শিক্ষার্থীরা। এতে প্রতিবাদকারী শিক্ষার্থীদের রাজাকারের বাচ্চা বলে গালি দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. এসএম ইমামুল হক। এর প্রতিবাদে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ২৬ মার্চ বিকেল থেকেই জোরদার আন্দোলন শুরু করেন। এরপর ২৮ মার্চ রাতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অনির্দিষ্টকালের জন্য বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষনা করে আবাসিক শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেন। তবে হল ত্যাগের ঘোষনা বর্জন করে শিক্ষার্থীরা টানা ১১দিন শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন কর্মসূচি চালিয়ে যায়।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com