শনিবার, ২৪ এপ্রিল ২০২১, ১২:২৮ পূর্বাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
করোনা চিকিৎসায় ব্যবহৃত ১৮০০ টাকার ইনজেকশন ৪ হাজার টাকা বরিশাল শেবাচিমের করোনা ওয়ার্ডে আইসিইউ বেড বৃদ্ধি অর্ধগলিত মাথা ও দাড়ালো অস্ত্র উদ্ধার: ভারত থেকে জমি বিক্রির টাকা নিতে এসে খুন হন ২ ভাই, গ্রেফতার-৩ কলাপাড়ায় ২৫ কি:মি: কাঁচা রাস্তার বেহাল দশায় ৩ ইউনিয়নের মানুষের জনদূর্ভোগ চরমে আগৈলঝাড়ায় স্বাস্থ্য বিধি না মানায় পথচারী ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিককে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা করোনা পরিস্থিতির কারনে আগৈলঝাড়ায় পোনা মাছ চাষী ও বিক্রেতাদের মানবেতর জীবন যাপন চরফ্যাসনে প্রবাসী পরিবারকে মিথ্যা মামলায় হয়রানি অভিযোগ প্রতিপক্ষের হয়রানিতে নিজ বাড়িতেই অবরুদ্ধ প্রবাসীর পরিবার মানবিক খাদ্য ব্যাংক চালু করেছে বরিশাল নাগরিক সংসদ বিয়ে না করেও স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বসবাস, আটক বানারীপাড়ায় কবি শঙ্খ ঘোষের পৈতৃকভিটার স্মৃতি রক্ষায় সরকারি সহায়তা প্রয়োজন
খালেদা জিয়ার প্রেস সচিব মারুফ কামাল খানকে অব্যাহতি

খালেদা জিয়ার প্রেস সচিব মারুফ কামাল খানকে অব্যাহতি

দখিনের খবর ডেস্ক ॥ বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সোহেলকে তার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তবে এ বিষয়ে তিনি অবহিত নন বলে জানিয়েছেন। জানা গেছে, তাকে অব্যাহতি দেওয়ার একটি চিঠি গতকাল সোমবার দলের নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে গুলশানে চেয়ারপারসনের দপ্তরে পাঠানো হয়েছে। সোমবারের মধ্যেই চিঠিটি মারুফ কামাল খানের কাছে পাঠানো হবে। বিএনপির দপ্তরের দায়িত্বে থাকা সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স বলেন, প্রেস সচিবকে অব্যাহতি দেওয়ার সিদ্ধান্তটি দলের পক্ষ থেকে আমাকে জানানো হয়েছে। আমি আদিষ্ট হয়ে অব্যাহতিপত্রটি গুলশান অফিসে পাঠিয়েছি। এটি দলীয় সিদ্ধান্ত। জানা গেছে, ২০১৮ সাল থেকেই মূলত মারুফ কামাল খান নিষ্ক্রিয় আছেন। তিনি তার কর্মস্থলে যান না। সম্প্রতি ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়া নিয়ে খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে তার উপ-প্রেস সচিব হিসেবে কর্মরত বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী মুশফিকুল ফজল আনসারীর সঙ্গে মারুফ কামাল খান সোহেলের দ্বন্দ্ব তৈরি হয়। ২০০৯ সাল থেকে মারুফ কামাল খান বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস সচিবের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। এর আগে ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত চারদলীয় জোট ক্ষমতায় থাকাকালে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিবের দায়িত্বেও ছিলেন। একই সময়ে মুশফিকুল ফজল আনসারীও ওই পদে কর্মরত ছিলেন। মারুফ কামাল খান গতকাল সোমবার বিকেলে বলেন, এ বিষয়ে আমি এখনও কিছু জানি না। কোনো চিঠিও পাইনি। তিনি বলেন, ২০১৮ সালে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার আগে তিনি তার কার্যালয়ে গিয়েছিলেন। এরপর আর যাননি।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com