শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ১১:৫৭ অপরাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
করোনা চিকিৎসায় ব্যবহৃত ১৮০০ টাকার ইনজেকশন ৪ হাজার টাকা বরিশাল শেবাচিমের করোনা ওয়ার্ডে আইসিইউ বেড বৃদ্ধি অর্ধগলিত মাথা ও দাড়ালো অস্ত্র উদ্ধার: ভারত থেকে জমি বিক্রির টাকা নিতে এসে খুন হন ২ ভাই, গ্রেফতার-৩ কলাপাড়ায় ২৫ কি:মি: কাঁচা রাস্তার বেহাল দশায় ৩ ইউনিয়নের মানুষের জনদূর্ভোগ চরমে আগৈলঝাড়ায় স্বাস্থ্য বিধি না মানায় পথচারী ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিককে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা করোনা পরিস্থিতির কারনে আগৈলঝাড়ায় পোনা মাছ চাষী ও বিক্রেতাদের মানবেতর জীবন যাপন চরফ্যাসনে প্রবাসী পরিবারকে মিথ্যা মামলায় হয়রানি অভিযোগ প্রতিপক্ষের হয়রানিতে নিজ বাড়িতেই অবরুদ্ধ প্রবাসীর পরিবার মানবিক খাদ্য ব্যাংক চালু করেছে বরিশাল নাগরিক সংসদ বিয়ে না করেও স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বসবাস, আটক বানারীপাড়ায় কবি শঙ্খ ঘোষের পৈতৃকভিটার স্মৃতি রক্ষায় সরকারি সহায়তা প্রয়োজন
হতদরিদ্রের তালিকায় ছেলে-ভাইয়ের নাম, চেয়ারম্যান বরখাস্ত

হতদরিদ্রের তালিকায় ছেলে-ভাইয়ের নাম, চেয়ারম্যান বরখাস্ত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মেহারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আলম মিয়াকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়। করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত ও হতদরিদ্র পরিবারের জন্য ঈদ উপহার হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া আড়াই হাজার টাকার তালিকায় নিজের ছেলে ও আপন ভাইসহ ৯ জন নিকট আত্মীয়ের নাম অন্তর্ভূক্ত করায় তাকে বরখাস্ত করা হয়।

গতকাল বুধবার চেয়ারম্যান আলমকে বরখাস্ত করে মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। তালিকা তৈরিতে অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতি করার অভিযোগের বিষয়টি তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ শামসুজ্জামান ইউপি চেয়ারম্যানের সাময়িক বরখাস্ত করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে, মেহারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলম মিয়ার বিরুদ্ধে করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত ও হতদরিদ্রদের জন্য মোবাইল ব্যাংকিং সেবার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া আড়াই হাজার টাকার তালিকা তৈরিতে অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ উঠে। ক্ষমতার অপব্যাবহার করে তালিকায় নিজের ছেলে ও আপন ভাইসহ নিকট আত্মীয়দের নাম অন্তর্ভূক্ত করেন তিনি। এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদও প্রকাশিত হয়।
পরবর্তী সময়ে অভিযোগ তদন্তে পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করে জেলা প্রশাসন ও কসবা উপজেলা প্রশাসন। ওই দুই কমিটি চেয়ারম্যান আলম মিয়ার বিরুদ্ধে অনিয়ম করার সত্যতা পায়।

গত ৮ জুন জেলা প্রশাসকের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয় কমিটি। পরবর্তী সময়ে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্থানীয় সরকার বিভাগে সুপারিশ করে চিঠি দেন জেলা প্রশাসক।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com