বৃহস্পতিবার, ৩০ Jun ২০২২, ০৭:৫৪ পূর্বাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
ইউপি মেম্বার কল্যান এসোসিয়েশন উপজেলা কমিটি গঠন, সভাপতি তারেক সম্পাদক তৌহিদুল মেহেন্দিগঞ্জের চানপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে গোপনে ম্যানেজিং কমিটি গঠনের পায়তারা  মেহেন্দিগঞ্জে ওয়ারেন্টভুক্ত দুই আসামি গ্রেফতার মাহমুদিয়া স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দূর্নীতির  অভিযোগ ভাণ্ডারিয়ায় ইয়াবাসহ ছাত্রদলের আহবায়ক উজ্জল গ্রেফতার-১ মাদক থেকে দূরে থাকতে খেলাধুলার বিকল্প নেই পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী, জাহিদ ফারুক শামীম সন্ত্রাসী হামলায় হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন বরিশালের সাংবাদিক নোমানী এই সরকার জনগণের সরকার হতে পারে নাই-ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর সড়ক দুর্ঘটনায় বিএনপি নেতা আকতার মাস্টারের মৃত্যুতে সান্টুর শোক উজিরপুরে ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক জুয়েলের কুশপুত্তলিকাদাহ, সরফুদ্দিন সান্টুর নিন্দা
বরিশালের হিজলায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসি

বরিশালের হিজলায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসি

ষ্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশালের হিজলায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামী ইউসুফ সিকদারকে ফাঁসির দন্ড দিয়েছে আদালত। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে বরিশালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালেতের বিচারক আবু শামীম আজাদ আসামীর উপস্থিতিতে এ রায় প্রদান করেন। দন্ডপ্রাপ্ত ইউসুফ সিকদার (৩২) হিজলা উপজেলার ইন্দুরিয়া গ্রামের মোঃ হারুন সিকদারের ছেলে।
মামলার অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, হত্যার ঘটনার ৪ বছর পূর্বে দন্ডপ্রাপ্ত ইউসুফ সিকদারের সাথে হিজলার মেমানিয়া এলাকার মোঃ ফারুক সিকদারের মেয়ে কুলসুম বেগমের সাথে বিবাহ হয়। যাদের সিফাত নামের এক শিশু (পুত্র) সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে কুলসুম বেগমের স্বামীসহ শশুর বাড়ির লোকজন যৌতুক দাবী করে আসছিলো। দাবীর প্রেক্ষিতে কুলসুমের বাবা ও মামলার বাদী মোঃ ফারুক ফকির নগদ ২ লাখ টাকা ও ১ লাখ টাকা মূল্যের ৩ টি গরু প্রদান করেন। কিন্তু এতে কুলসুম বেগমের স্বামীসহ শশুর বাড়ির লোকজন সন্তুষ্ট না হয়ে আরো ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করেন। তবে এ টাকা দিতে অসীকৃতি জানায় কুলসুমের পিতা। পরবর্তীতে ২০১৬ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি দুপুরে কুলসুমের বাবা ও মামলার বাদী জানতে পারেন, তার মেয়ের শশুরবাড়িতে মৃত্যু হয়েছে। এমন সংবাদে তিনি মেয়ের শশুরবাড়িতে গিয়ে বসত ঘরের চৌকির ওপরে মরদেহ পরে থাকতে দেখেন। এসময় তিনি জানতে পারেন, তার মেয়েকে যৌতুকের দাবীতে মারধর করে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে এবং ঘটনা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার কুলসুম বিষপানে আত্মহত্যা করেছে এমন খবর এলাকায় ছড়িয়ে মামলার আসামীরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ওইদিনই নিহত কুলসুমের বাবা মোঃ ফারুক সিকদার বাদী হয়ে ৬ জনের বিরুদ্ধে হিজলা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামীরা হলেন কুলসুমের স্বামী ইউসুফ সিকদার, শশুর হারুন সিকদার, শাশুরি রাহিমা বেগম, চাচা শশুর জাহাঙ্গীর সিকদার, ননদ রোকেয়া বেগম, ননদের স্বামী হালান বেপারী। একই বছরের ৯ মে হিজলা থানার এসআই মোঃ আসাদুজ্জামন হাওলাদার নিহত কুলসুমের স্বামী ইউসুফ সিকদারকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। আদালত ১৩ জনের সাক্ষগ্রহন শেষে গতকাল এ রায় প্রদান করেন বলে জানিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালেতের স্পেশাল পিপি ফয়জুল হক ফয়েজ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com