সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০১:১৯ অপরাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
ফেদেরার-নাদালের আরও কাছে জোকোভিচ

ফেদেরার-নাদালের আরও কাছে জোকোভিচ

ক্রীড়া ডেস্ক ॥ গ্র্যান্ড স্লামের নাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। যেখানে পুরুষ একক মানেই যেন নোভাক জোকোভিচের হাতে শিরোপা। এবারও তা-ই হলো। গতকাল ফাইনালে রাশিয়ার দানিল মেদভেদেভকে একপেশে এক ম্যাচে গুঁড়িয়ে দিয়েই নবমবারের মতো বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্লামটির ট্রফি হাতে তুললেন পুরুষ টেনিসের ১ নম্বর খেলোয়াড় জোকোভিচ। ১৮তম গ্র্যান্ড স্লাম জিতে তাতে রজার ফেদেরার ও রাফায়েল নাদালের ২০ গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের রেকর্ডের আরেকটু কাছে পৌঁছে গেলেন সার্বিয়ান তারকা। গতকাল মেদেভেদেভকে হারাতে মাত্র ১ ঘণ্টা ৫৩ মিনিটই লেগেছে ‘জোকার’ জোকোভিচের। ৭-৫, ৬-২, ৬-২ গেমে জিতেছেন। ইতিহাসের দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে কোনো একটি গ্র্যান্ড স্লাম আটবারের বেশি জিতলেন জোকোভিচ। ১৩ বার ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতে যে রেকর্ডের মালিক স্পেনের রাফায়েল নাদাল। সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্লাম রজার ফেদেরার-২০, রাফায়েল নাদাল-২০, নোভাক জোকোভিচ-১৮, পিট সাম্প্রাস-১৪, রয় এমারসন-১২। টানা তৃতীয়বার অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জেতা জোকোভিচ কখনোই হারেননি বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্লামের ফাইনালে। ২০০৮ সালে জো-উইলফ্রিড সোঙ্গাকে হারিয়ে প্রথম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জেতা জোকোভিচ এরপর ২০১১, ২০১২, ২০১৩, ২০১৫, ২০১৬, ২০১৯, ২০২০ সালেও জিতেছেন মেলবোর্ন পার্কে। এবারের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালটা ৩৩ বছর বয়সী তারকা এত সহজে যে জিতে যাবেন, তা কেউ ভাবেনি। টুর্নামেন্টের মাঝপথে তো চোটের কারণে জোকোভিচের সরে দাঁড়ানোর শঙ্কাও তৈরি হয়েছিল। সেই চোটের সঙ্গে লড়াই করতে করতেই ফাইনালে উঠেছেন। অন্যদিকে মেদভেদেভ টানা ২০ ম্যাচ জিতেই এসেছিলেন রড লেভার অ্যারেনার ফাইনালে। কিন্তু জোকোভিচের ‘পাওয়ার টেনিসে’র কাছে পাত্তাই পেলেন না রাশিয়ার উঠতি তারকা। গ্র্যান্ড স্লাম ক্যারিয়ারে দুবার ফাইনালে উঠে দুবারই রানারআপ ট্রফি নিয়ে বাড়ি ফিরতে হলো তাঁকে। জোকোভিচের সামনে অসহায় হয়ে শেষ সেটে তো মেজাজও হারালেন মেদভেদেভ। ওই সেটে কী করেননি ২৫ বছর বয়সী রুশ! র‌্যাকেট ছুড়ে মেরেছেন, নিজের ক্যাম্পের সতীর্থদের উদ্দেশে রেগেমেগে চিৎকার করেছেন। শরীরী ভাষাতেও যেন হার মেনে নিয়েছিলেন সেমিফাইনালে গ্রিসের স্তেফানো সিৎসিপাসকে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে ওঠা মেদভেদেভ। উল্টো দিকে জোকোভিচ গতকাল শেষটাও করলেন কী দারুণভাবে! মাথার ওপর দিয়ে মারা ব্যাকহ্যান্ড ভলিতে চ্যাম্পিয়নশিপ পয়েন্টটি নিয়ে শুয়ে পড়লেন রড লেভার অ্যারেনার নীল কোর্টে। ম্যাচ শেষে একসময়ের অনুশীলন সতীর্থ মেদভেদেভকে শুভকামনা জানাতে ভোলেননি জোকোভিচ, ‘কোর্টে আমি জীবনে যাঁদের মুখোমুখি হয়েছি, তাঁদের মধ্যে অন্যতম কঠিন প্রতিপক্ষ সে। তোমার (মেদভেদেভ) হাতে গ্র্যান্ড স্লাম ওঠা শুধুই সময়ের ব্যাপার।’ যে কোর্টে জিতেছেন ৯টি গ্র্যান্ড স্লাম, সেই রড লেভার অ্যারেনাকেও ধন্যবাদ দিয়েছেন জোকোভিচ, ‘উত্থান-পতনে ভরপুর একটা সপ্তাহ গেল আমার। রড লেভার অ্যারেনা, প্রতিবছরই তোমার জন্য আমার ভালোবাসা বাড়ছে। ভালো লাগার সম্পর্কটা চলছেই। তোমাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।’

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com