শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ১১:৪৯ অপরাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
করোনা চিকিৎসায় ব্যবহৃত ১৮০০ টাকার ইনজেকশন ৪ হাজার টাকা বরিশাল শেবাচিমের করোনা ওয়ার্ডে আইসিইউ বেড বৃদ্ধি অর্ধগলিত মাথা ও দাড়ালো অস্ত্র উদ্ধার: ভারত থেকে জমি বিক্রির টাকা নিতে এসে খুন হন ২ ভাই, গ্রেফতার-৩ কলাপাড়ায় ২৫ কি:মি: কাঁচা রাস্তার বেহাল দশায় ৩ ইউনিয়নের মানুষের জনদূর্ভোগ চরমে আগৈলঝাড়ায় স্বাস্থ্য বিধি না মানায় পথচারী ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিককে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা করোনা পরিস্থিতির কারনে আগৈলঝাড়ায় পোনা মাছ চাষী ও বিক্রেতাদের মানবেতর জীবন যাপন চরফ্যাসনে প্রবাসী পরিবারকে মিথ্যা মামলায় হয়রানি অভিযোগ প্রতিপক্ষের হয়রানিতে নিজ বাড়িতেই অবরুদ্ধ প্রবাসীর পরিবার মানবিক খাদ্য ব্যাংক চালু করেছে বরিশাল নাগরিক সংসদ বিয়ে না করেও স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বসবাস, আটক বানারীপাড়ায় কবি শঙ্খ ঘোষের পৈতৃকভিটার স্মৃতি রক্ষায় সরকারি সহায়তা প্রয়োজন
চীন হামলা করলে শেষপর্যন্ত লড়বো: তাইওয়ান

চীন হামলা করলে শেষপর্যন্ত লড়বো: তাইওয়ান

চীন হামলা করলে শেষপর্যন্ত লড়বো: তাইওয়ান

বিদেশ ডেস্ক ॥ তাইওয়ানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জোসেফ উু বলেছেন, যদি চীন তাদের ওপর হামলা করে তাহলে শেষ পর্যন্ত লড়ে যাবেন তারা। এ ধরনের হামলার ঘটনা ঘটতে পারে বলে আগেই উপলব্ধি করতে পেরেছে যুক্তরাষ্ট্র। সাম্প্রতিক মাসগুলোতে দ্বীপটির কাছে চীনের সামরিক বাহিনীর উপস্থিতি এবং সামরিক মহড়া বেড়ে গেছে। খবর রয়টার্সের। সাম্প্রতিক মাসগুলোতে তাইওয়ানে বারবার সামরিক মহড়া চালিয়েছে চীন। এমনকি এসময় প্রায় প্রতিদিনই তাইওয়ানের আকাশ প্রতিরক্ষা শনাক্তকরণ জোনে প্রবেশ করেছে চীনের বিমানবাহিনী। চীন সোমবার জানায়, তাদের একটি বিমানবাহী রণতরী দ্বীপটির কাছাকাছি মহড়া চালাচ্ছে। নিজের মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের উ বলেন, আমি যতটুকু বুঝতে পারি যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্ত গ্রহণকারীরা এই অঞ্চলের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে, তাইওয়ানের বিরুদ্ধে চীনের একটি সম্ভাব্য হামলা চালানোর বিপদ তারা স্পষ্টতই দেখতে পেয়েছেন। তিনি বলেন, আমরা কোনও প্রশ্ন ছাড়াই নিজেদের আত্মরক্ষা এবং যদি আমাদের যুদ্ধ করতে হয় তাহলে আমরা যুদ্ধ করবো। আর যদি শেষ দিন পর্যন্ত আমাদের আত্মরক্ষা করতে হয়, তাহলে আমরা শেষ দিন পর্যন্ত নিজেদের আত্মরক্ষা করবো। বিশ্ব অঙ্গনে তাইওয়ানের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সমর্থক এবং অস্ত্র বিক্রেতা হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। তাইওয়ানের সামরিক বাহিনীকে আধুনিকায়ন করতে বহুদিন ধরেই সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে ওয়াশিংটন। যাতে করে তাইওয়ান একটি ‘সজারু’ হতে পারে। এর ফলে তাইওয়ানে যাতে চীনের হামলা কঠিন হয়ে ওঠে। উ বলেন, আমরা আমাদের সামরিক সক্ষমতা বাড়াতে এবং প্রতিরক্ষা খাতে আরও ব্যয় করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com