রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ০৫:৪০ অপরাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে মিয়া মোঃ ওহাব পৌর বাসীর জন্য ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ

পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে মিয়া মোঃ ওহাব পৌর বাসীর জন্য ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ

পিরোজপুর জেলা প্রতিনিধি
করোনার ভাইরাস  আতঙ্কে  বিশ্ব সহ সমগ্র  বাংলাদেশের মধ্যে  লক ডাউনের আওতায় আনা হয়েছে গত ২৫ মার্চ থেকে । আর লক ডাউনের কারণে বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় এক ধরনের অভাবের চিত্র ফুটে উঠেছে সর্বত্র। বিত্তশালী পরিবার গুলো ব্যাতিত বাকী নিন্ম ও মধ্যবিত্ত পরিবারের লোকজন মহা বিপাকে পড়েছে। যদিও সরকার তার সমর্থ অনুযায়ী ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করে যাচ্ছে। সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও কমবেশি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন ইতিমধ্যে।  আর হ্যা বলছিলাম পিরোজপুর জেলার মধ্যে স্বরূপকাঠি পৌরসভার সাবেক জনপ্রিয়  কাউন্সিলর মিয়া মোঃ ওহাব মিয়ার কথা। জাতীয় কঠিন দুঃসময়ে সরকারের পাশাপাশি বিকল্প হিসাবে স্বরূপকাঠি পৌরসভার সকল ওয়ার্ডের মধ্যে অসহায় মানুষের পাশে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টার সময়ে পর্যায়ে ক্রমে  সরকারি স্বাস্থ্য নীতি মান্য করে তিন ফিট দূরত্ব বজায় রেখে সারিবদ্ধ ভাবে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা লোকগুলো একের পরে এক ত্রাণ সামগ্রী নেয়। এ সময়ে পৌর সভার মোঃ রফিকুল ইসলাম চান্দু, মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন ডাকুয়া সহ  বহু শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন। পাশাপাশি জেলার ও উপজেলার বহু গণ মাধ্যম কর্মীরাও উপস্থিত ছিলেন।  এ ব্যাপারে মিয়া মোঃ ওহাব জেলার গণ মাধ্যম কর্মীদের বলেন, আসলে আমি জাতির কঠিন দুঃসময়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে পারায় প্রথমে মহান আল্লাহর দরবারে লাখ লাখ শুকরিয়া। আসলেই আমাদের স্বরূপকাঠি সহ সমগ্র বাংলাদেশের মধ্যে করোনার আতঙ্কে সকলেই এক ধরনের মহা বিপাকে পড়েছে। সমাজের অসহায় লোকগুলো মহা কঠিন সমস্যার মধ্যে হাবুডুবু খাচ্ছে। আমার নিজের উপলব্ধি থেকে আমি পৌর সভার সকল ওয়ার্ডের মধ্যে অসহায় মানুষের পাশে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছি। মিডিয়ার আর এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, আসলে আমার মত নির্বিশেষে বহু বিত্তশালীদের এগিয়ে আশা উচিত বলে মনে করেন।                             এদিকে পৌরসভার মধ্যে সবচেয়ে আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে পরিনত হয় মিয়া মোঃ ওহাবের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ। যদিও পৌরসভার মেয়র সহ  বি এন পির নেতা ও     বেশ কয়েকজন রাজনীতিবিদরা সমর্থ অনুযায়ী এগিয়ে এসেছেন ইতিমধ্যে। এন জিওর মধ্যে স্থানীয় ভাবে সবার আগে দিশারী ক্ষুদ্র ব্যবসা সমবায় সমিতির  স্বত্বাধিকারীরা মোঃ রফিকুল ইসলাম এগিয়ে আসছেন ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে। তবে বিশাল পরিসরে  পৌর সভার মধ্যে মিয়া মোঃ ওহাবের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ স্থানীয় পৌরবাসীকে মুগ্ধ করে। এ ব্যাপারে পৌর সভার বাসিন্দা আঃ রহিম (৭০) সহ সুফিয়া(৬৯), মরিয়ম (৭৬) জেলার গণ মাধ্যম কর্মীদের বলেন, আসলে আমরা সকলেই কম বেশি সাহায্য পেয়েছি। তবে এবারের ত্রাণ সামগ্রী শুধু চাউল হওয়ার আমরা সকলেই মুগ্ধ। আসলে চাল না থাকলে অভাবের সংসারে চরম অশান্তি লেগেই থাকে। তাই চাল পেয়ে বেজায় খুশি আমরা সকলেই।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com