রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:১৮ পূর্বাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
দলীয় কর্মীকে মারধর, অপর এক কর্মীকে চোখ তুলে নেয়ার হুমকি, আগ্রাসী রুপে বিএনপি নেতা বিতর্কিত আকন কুদ্দুস অতিরিক্ত সচিব হলেন বাবুগঞ্জের সন্তান ড. হারুন অর রশিদ বিশ্বাস কাঠালিয়ায় বৃষ্টি ও জোয়ারের পানিতে জনজীবন বিপর্যস্ত টোল আদায় বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ ঝালকাঠির মহাসড়কে পৌরসভার চাঁদাবাজী নলছিটিতে দেবরের বিরুদ্ধে ভাবির জমি দখল, মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ দশমিনায় লক্কর-ঝক্কর আয়রণ ব্রিজে ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার, দুর্ঘটনার আশঙ্কা বরগুনায় স্থাপন হচ্ছে দেশের প্রথম নৌকা জাদুঘর শেরে বাংলার চাখারকে তিলোত্তমা রূপ দিতে নানামুখী উন্নয়ন পরিকল্পনা পিরোজপুরে ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে ১ বছর ধরে ধর্ষণ, ২ ভাসুরের বিরুদ্ধে মামলা উজিরপুরে বাবা মার সাথে অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা
গৌরনদীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে একই গ্রামের দুজনের মৃত্যু

গৌরনদীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে একই গ্রামের দুজনের মৃত্যু

গৌরনদী প্রতিনিধি ॥ বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বাটাজোর ইউনিয়নের হরহর গ্রামে করোনার উপসর্গ নিয়ে এক ব্যবসায়ীসহ দুজনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার এই বিয়োগান্তের ঘটনায় করোনা আতঙ্কে মৃতদের স্থানীয়ভাবে কেউ দাহ করতে না যাওয়ায় বরিশাল থেকে একটি টিম এসে লাশ দাহ করেন। নমুনা সংগ্রহ করা ছাড়াই সংখ্যালঘু সম্পদায়ের দুজনের মরদেহ অন্ত্যোষ্টিক্রিয়া করা হয়। গৌরনদী উপজেলার বাটাজোর ইউনিয়নের হরহর গ্রামের চায়ের দোকানদার (৬০) ৫/৭ দিন ধরে সর্দি, জ্বর কাসিসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে অসুস্থ্য হয়ে গোপনে বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছিল। সোমবার সকালে সে নিজ বাড়িতে মারা যায়। একই দিন একই গ্রামের কৃষক (৫০) একই উপসর্গ নিয়ে মারা যান। স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল মান্নান জানান, মৃত দুজনের মধ্যে করোনা উপসর্গ ছিল এবং কযেকদিন ধরে তারা অসুস্থ্য ছিল। করোনা আতঙ্কে লাশ কেউ দাহ করতে রাজি হননি। পরে বরিশাল থেকে একটি টিম এসে লাশ দুটি দাহ করেন। গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সাইয়্যেদ মোহাম্মদ আমরুল্লাহ বলেন, করোনায় সংক্রমিত হয়ে মারা গেলে তিন ঘন্টার মধ্যে নমুনা গ্রহন না করলে সঠিক রিপোর্ট পাওয়া যায় না।সঠিক সময় আমাদের সংবাদ না দেয়ায় নমুনা সংগ্রহ করা যায়নি। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের অনুমতি নিয়ে লাশ দাহ করা হয়েছে। বাটাজোর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রব হাওলাদার বলেন, পরিবারের পক্ষ থেকে হৃদরোগে মারা যাওয়ার কথা দাবি করে। কিন্তু স্থানীয় ও গ্রামবাসী করোনার উপসর্গ ছিল বলে জানিযেছে। গ্রামবাসীর মধ্যে করোনা আতঙ্ক থাকায় লাশ দাহ না করায় বরিশাল খবর পাঠানো বরিশাল থেকে একটি টিম এসে লাশ দাহ করে।’

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com