বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ০২:৪৭ পূর্বাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
পটুয়াখালীতে এসডিএফ ও উপজেলা মৎস্য অফিস কতৃক প্রান্তিক জেলেদের জীবনমান উন্নয়ন মূলক সভা অনুষ্ঠিত জননেত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে দেশের বহুমাত্রিক উন্নয়ন অব্যাহত থাকবে-এমপি শাওন চরফ্যাসনে তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীর বিরুদ্ধে সাবেক স্বামীকে হয়রানীর অভিযোগ চরফ্যাসনে ভুমিহীন পরিবারকে জমি থেকে উচ্ছেদে চেষ্টার অভিযোগ জাতীয় কন্যাশিশু দিবস উপলক্ষে পিরোজপুরের ভা-ারিয়ায় আলোচনা সভা বিএমপি পুলিশের মোবাইল নম্বর পরিবর্তন আগৈলঝাড়ায় একটি বিদ্যালয়ে তিন ঘন্টার পরীক্ষা হচ্ছে চব্বিশ ঘন্টায় আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ এমপি’র সুস্থ্যতা কামনায় আগৈলঝাড়ায় দোয়া-মোনাজাত অনুষ্ঠিত নাজিরপুরে নিখোঁজ বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ’র সুস্থতা কামনায় সম্পাদক পরিষদ বরিশালের উদ্যোগে দোয়া-মোনাজাত
পিরোজপুরে প্রেমে ব্যর্থ যুবকের আত্মহত্যা

পিরোজপুরে প্রেমে ব্যর্থ যুবকের আত্মহত্যা

পিরোজপুর প্রতিনিধি ॥ প্রেমে ব্যার্থ হয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে পিরোজপুর সদর উপজেলার নামাজপুর এলাকার যুবক ইমন হাওলাদার (২০) নানা বাড়ী ইন্দুরকানীতে বসে আত্মহত্যা করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। মারা যাওয়ার পূর্বে নিজ হাতে লেখা একটি চিরকুট উদ্ধার হয়েছে। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার গাবছিয়ায় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সন্ধ্যায় ওইদিন সন্ধায় নানা ইউনুস আলী হাওলাদারের বাড়ির খাবার ঘর থেকে ইমনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
জানাগেছে, ইমন বেশ কিছিুদিন যাবৎ নানা বাড়িতে অবস্থান করছিল। এখানে থাকার সুবাদে পাশ্ববর্তী এক মেয়ের সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে বলে তার নানি জানিয়েছেন। কিন্তু নানা বাড়ির কেউ ওই প্রেমের সম্পর্কে রাজি ছিলেন না। পারিবারিক সূত্রে জানাগেছে, শনিবার সন্ধ্যার দিকে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন ইমন। দুই ভাই ও তিন বোনের মধ্যে ইমন মেঝ। ইমন খুলনার একটি চাইনিজ রেস্টুরেন্টে কাজ করতেন।
তবে মারা যাওয়ার পূর্বে যুবক ইমন নিজ হাতে একটি চিরকুট লিখে রেখে গেছেন। তাতে লেখা ছিল- ‘আমি মরে গেলে কেউ দায়ী না। আমি যাকে ভালোবাসি তাকে আমি পাই নাই। আমার জীবনের কোন দাম নাই। সবার কাছে আমি ক্ষমা চাইলাম’। এ ব্যাপারে ইন্দুরকানী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ইমন নামের এক যুবক আত্মহত্যা করেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে। মৃত ইমন পিরোজপুর সদর উপজেলার নামাজপুর গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেঝ ছেলে ও ইন্দুরকানী উপজেলার গাবগাছিয়া গ্রামের ইউনুছ ঘরামির মেয়ে নাতি। উল্লেখ্য, এর পূর্বে বিগত ২০১৮ সালের এপ্রিলে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইমনের নবম শ্রেনীতে পড়ুয়া বোন রিবি আক্তার গলায় ওড়না দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছিলেন বলে জানাগেছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com