শুক্রবার, ২০ নভেম্বর ২০২০, ০৫:২৯ অপরাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
মুলাদীতে দোয়া মোনাজাতের মধ্য দিয়ে সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুলাহ’র ৪৭ তম জন্মদিন পালিত বরিশালে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহের উদ্বোধন মেয়াদ উত্তীর্ণের সাথে সাথেই মাঠ ছেড়ে উধাও বরিশাল জেলা ছাত্রদল! ঢাকায় বসে করছে পদ বানিজ্য! বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের সামনেই ফুটপাত দখল করে অবৈধ ভাসমান জুতার দোকান! ধর্ম অবমাননা : বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে শোকজ বরগুনায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শ্রমিকের মৃত্যু পটুয়াখালীতে গলাকাটা বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার পটুয়াখালীতে অন্তঃসত্ত্বা তরুণীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার নদীগর্ভে বিলীন মির্জাগঞ্জের ৪ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আমতলীতে সাংবাদিকের জমির গাছ কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা
সাম্রাজ্যবাদের যুগ শেষ

সাম্রাজ্যবাদের যুগ শেষ

লাদাখ সীমান্তে গতকাল আকস্মিক সফরে গিয়ে চীনকে কড়া বার্তা দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। সরাসরি চীনের নাম উল্লেখ না করে নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, সাম্রাজ্যবাদের যুগ শেষ হয়ে গেছে, এটা উন্নয়নের যুগ, বিকাশবাদই ভবিষ্যৎ। সম্প্রতি চীনের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত ভারতীয় সেনাদের বীরত্বের কথাও স্মরণ করেছেন তিনি।

এনডিটিভি জানায়, সীমান্ত পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে শুক্রবার সকালে বিশেষ বিমানে আচমকা লাদাখের লেহ ঘাঁটিতে যান মোদি। তার সঙ্গে ছিলেন তিন বাহিনীর প্রধান চিফ অব ডিফেন্স জেনারেল বিপিন রাওয়াত ও সেনাপ্রধান মনোজ মুকুন্দ নরবনে।

১১ হাজার ফুট উঁচুতে দাঁড়িয়ে মোদি লাদাখে নিয়োজিত ভারতীয় সেনাদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, ‘আপনারা যে জায়গাটিতে মোতায়েন আছেন, তার থেকেও অনেক উঁচুতে অবস্থান করছে আপনাদের সাহসিকতা। আপনাদের চারপাশে ঘিরে থাকা পর্বতগুলোর মতোই আপনারা শক্তিশালী।’

চীনের নাম উল্লেখ না করে মোদি বলেন, ‘ইতিহাস সাক্ষী রয়েছে, সাম্রাজ্যবাদী শক্তি ধ্বংস হয়ে গেছে, নয়তো হার মেনেছে। বীরত্বই শান্তির পূর্ব শর্ত, দুর্বলরা শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে পারে না।’

সেনাদের উদ্বুদ্ধ করতে এবং মৃত সৈনিকদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে মোদি বলেন, ‘আমি দুই মা-কে সবচেয়ে বেশি সম্মান করিÑ এক, ভারতমাতা এবং দুই, বীরমাতাÑ যারা এই সাহসী, পরাক্রমী সেনাদের জন্ম দিয়েছেন।’

জুনের মাঝামাঝি লাদাখের গালওয়ানে ওই সংঘর্ষে দুই পক্ষই পাথর, রড ও লাঠি ব্যবহার করেছিল বলে বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে। সংঘর্ষে ভারতের ২০ সেনা নিহত ও ৭৬ জন আহত হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে নয়াদিল্লি। বেইজিং তাদের দিককার কোনো ক্ষয়ক্ষতির কথা জানায়নি।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com