শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:২২ অপরাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
সমালোচনার মুখে ফেসবুক বিশাল আর্থিক ক্ষতির আশঙ্কা

সমালোচনার মুখে ফেসবুক বিশাল আর্থিক ক্ষতির আশঙ্কা

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে বর্ণবাদ ও ঘৃণ্য বক্তব্য ছড়ানোর প্রতিবাদে, এই মাধ্যম বর্জনের জন্য হ্যাশট্যাগ (#) স্টপহেটফরপ্রফিট আন্দোলন জোরদার হচ্ছে। আর এর ফলে এক ধাক্কায় ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গের সম্পদ প্রায় ৭২০ কোটি ডলার কমে গেছে। গত একদিনে ফেসবুকের শেয়ারের দরপতন ঘটে ৮ দশমিক ৩ শতাংশ। বিস্তারিত জানাচ্ছেন আজহারুল ইসলাম অভি

ফেসবুকে বিদ্বেষমূলক কিংবা বর্ণবাদ কনটেন্ট বন্ধের দাবিতে যুক্তরাষ্ট্রের স্বনামধন্য কোম্পানিগুলো এই প্ল্যাটফর্মে বিজ্ঞাপন দেওয়া বন্ধ করেছে। জানা গেছে, বর্ণবাদের বিরুদ্ধে আন্দোলনকারী একটি সংগঠন ‘দ্য স্টপ হেইট ফর প্রফিট’ এখন বয়কটকে তাদের আন্দোলনের রাজনৈতিক অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে।

আন্দোলনকারীরা বেশকিছু বড় বড় কোম্পানিকে ফেসবুক এবং এ ধরনের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মে বিজ্ঞাপন দেওয়া বন্ধ করতে রাজি করাতে পেরেছেন। তবে সাময়িক কিছু ক্ষতির সম্মুখীন হলেও শেষ পর্যন্ত এ ক্ষতি কাটিয়ে উঠবে ফেসবুক এমনটাই বলছেন বিশেষজ্ঞরা। আর ফেসবুক কর্তৃপক্ষ হয়তো চাপে পড়ে তাদের নীতিমালায় পরিবর্তন আনতে পারে বলে ধারণা বিশেষজ্ঞদের। এ নিয়ে ৪০০টিরও বেশি প্রতিষ্ঠান তাদের বিজ্ঞাপন তুলে নিয়ে ফেসবুককে বয়কট করেছে।

তারই ধারাবাহিকতায় এবার কানাডার বেশকিছু ব্যাংক ফেসবুক বয়কট এবং বিজ্ঞাপন সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কানাডার রয়াল ব্যাংক, টরেন্টো-ডোমিনিয়ন ব্যাংক, ব্যাংক অব নোভা স্কটিয়া, ব্যাংক অব মনটেরাল, ন্যাশনাল ব্যাংক অব কানাডা এবং কানাডিয়ান ইম্পেরিয়াল ব্যাংক অব কমার্স যৌথভাবে চলতি জুলাই মাস থেকেই সব ধরনের বিজ্ঞাপন বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এদিকে কানাডার অন্যতম বৃহত্তম ডেসজারডিনস গ্রুপ, ফেডারেল ক্রেডিট ইউনিয়ন তাদের ওয়েবসাইটে জানায়, চলতি মাস থেকে ফেসবুকসহ এর আওতাধীন প্রতিষ্ঠান ইনস্টাগ্রামেও বিজ্ঞাপন বন্ধ করে দেবে। ইতোমধ্যে ইউনিলিভার, কোকো-কোলা, ফোর্ড, অ্যাডিডাস, এইচপি, স্টারবার্কস, মাইক্রোসফট এবং হুন্ডাসহ বিশ্বের অন্তত ৪০০টি ব্র্যান্ড ‘হ্যাশট্যাগ স্টপ হেট ফর প্রফিট’ নামের এই আন্দোলনে যোগ দিয়েছে। ইউনিলিভারের মতো বহুজাতিক কোম্পানিগুলো ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দেওয়া বন্ধ করায় প্রায় ৭২০ কোটি ডলার ক্ষতির মুখে পড়েছে মার্ক জাকারবার্গ। উল্লেখ্য, ইউনিলিভারের পক্ষ থেকে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন বন্ধের খবর প্রকাশ্যে আসতেই ফেসবুকের শেয়ার ৮.৩ শতাংশ দরপতন হয়। কোম্পানির শেয়ারের এই দরপতনের ধাক্কা এসে পড়েছে মার্ক জুকারবার্গের মোট সম্পত্তির পরিমাণেও। বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, জাকারবার্গের সম্পদের পরিমাণ আগের তুলনায় ৭২০ কোটি মার্কিন ডলার কমে গেছে। গেল তিন মাসের মধ্যে ফেসবুক শেয়ারের এতটা পতন ঘটেনি।

সম্প্রতি বর্ণবাদী সংগঠনকে প্রশ্রয় দেওয়াসহ বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনে চুপ থাকার জেরে ভেতরে-বাইরে প্রচুর সমালোচিত হয়েছে ফেসবুক। পরিস্থিতি সামলাতে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ ঘৃণ্য বক্তব্য ঠেকানোর কৌশল, পোস্টে লেবেল লাগানোসহ নানা পরিবর্তন আনার কথা বলেছেন। নাগরিক অধিকার নিরীক্ষণের জন্য ফেসবুক নিজেকে উন্মুক্ত করেছে। সংস্থাটির এক মুখপাত্র জানান, ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রাম থেকে ২৫০টির মতো বর্ণ আধিপত্যবাদী সংস্থা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ওই মুখপাত্র আরও জানান, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তায় বিনিয়োগ করছে ফেসবুক। এর অর্থ এটি প্রায় ৯০ শতাংশ ঘৃণ্য বক্তৃতা খুঁজে পাবে এবং ব্যবহারকারীরা এটির বিরুদ্ধে রিপোর্ট করার আগেই পদক্ষেপ নিতে পারবে। তার পরও ফেসবুকের ওপর আস্থা রাখতে পারছেন না অনেকেই।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com