শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:০৭ পূর্বাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
পুতিনের সঙ্গে কথা বলবেন ম্যাক্রোঁ, ম্যার্কেল

পুতিনের সঙ্গে কথা বলবেন ম্যাক্রোঁ, ম্যার্কেল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সিরিয়ায় ‘অনতিবিলম্বে’ ৩০ দিনের যুদ্ধবিরতি কার্যকরে নিরাপত্তা পরিষদে সর্বসম্মত প্রস্তাব পাস হওয়ার প্রেক্ষিতে বিষয়টি নিয়ে ফ্রান্স ও জার্মানির নেতারা রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ­াদিমির পুতিনের সঙ্গে কথা বলবেন। প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ এবং জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল যুদ্ধবিরতি বাস্তবায়ন নিয়ে রুশ প্রেসিডেন্টের সঙ্গে কথা বলবেন। ফরাসি প্রেসিডেন্টের দফতর সূত্রে এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যম এএফপি। ফরাসি প্রেসিডেন্টের দফতর জানিয়েছে, বিদ্রোহী অধ্যুষিত এলাকায় নতুন করে বিমান হামলা চালানো হয়েছে। ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ এবং আঙ্গেলা ম্যার্কেলের সঙ্গে পুতিনের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকবে ‘সিরিয়ায় দীর্ঘমেয়াদী শান্তি অর্জনের জন্য এই যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব এবং রাজনৈতিক রোডম্যাপের বাস্তবায়ন’-এর বিষয়টি। এক সপ্তাহজুড়ে সিরিয়ার ইস্টার্ন ঘৌটায় রাশিয়া সমর্থিত আসাদ বাহিনীর হামলায় নিহতের সংখ্যা ৫০০ ছাড়িয়ে যাওয়ার পর দেশটিতে যুদ্ধবিরতি কার্যকরে ঐকমত্যে পৌঁছায় নিরাপত্তা পরিষদ। তবে ঐকমত্যে পৌঁছালেও পাস হওয়া প্রস্তাব তাই কটোটুকু কাজে আসবে, তা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, অস্ত্রবিরতি প্রস্তাবের পরও দামেস্কের উপকণ্ঠে অবস্থিত ইস্টার্ন ঘৌটায় থামেনি আসাদ বাহিনীর বিমান হামলা। শনিবারের হামলায় নিহত হয়েছেন অন্তত ৪১ জন বেসামরিক নাগরিক। নিহতদের মধ্যে ৮ শিশুও রয়েছে। তবে রাশিয়ার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, তারা আসাদ বাহিনীর এসব হামলায় অংশ নেয়নি। ফ্রান্স ও জার্মানির পক্ষ থেকেও যুদ্ধবিরতি কার্যকরে রাশিয়ার সমর্থন চাওয়া হয়েছে। ফরাসি প্রেসিডেন্টের দফতরের এক বিবৃতিতে এই যুদ্ধবিরতিকে ‘একটি অপরিহার্য প্রথম পদক্ষেপ’ হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে। এর বাস্তবায়নে খুবই সতর্ক হতে হবে। এর আগে গত শনিবার রাতে নিরাপত্তা পরিষদে সর্বসম্মতভাবে এই যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব গৃহীত হয়। সংঘর্ষে আটকে পড়া বেসামরিক নাগরিকদের কাছে ত্রাণ ও চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দিতে এই প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়। জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হ্যালি বলেছেন, তারা অস্ত্রবিরতি চান। তবে বাশার আল আসাদ সেটা মানবেন কি না তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন তিনি। তিনি অভিযোগ করেন, রাশিয়া এই সমঝোতা নিয়ে বিলম্বিত করেছে। তিনি বলেন, ‘আমাদের এই প্রস্তাব পাশ হতে তিনদিন সময় লেগেছে। এই সময়ে অনেক মা তার সন্তানকে হারিয়েছে। জাতিসংঘে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত ভ্যাসিলি নেবেনজিয়া বলেছেন, একটি প্রস্তাব পাস করে সিরিয়ার অভ্যন্তরীণ সংকটের সমাধান করা যাবে ভেবে থাকলে তা হবে শিশুসুলভ মানসিকতা। সূত্র: বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com