মঙ্গলবার, ১৭ নভেম্বর ২০২০, ১০:১৯ অপরাহ্ন

উপ-সম্পাদক :: দিদার সরদার
প্রধান সম্পাদক :: সমীর কুমার চাকলাদার
প্রকাশক ও সম্পাদক :: কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর
যুগ্ম সম্পাদক :: মাসুদ রানা
সহ-সম্পাদক :: এস.এম জুলফিকার
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক :: মামুন তালুকদার
নির্বাহী সম্পাদক :: সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক :: আবুল কালাম আজাদ
সংবাদ শিরোনাম :
বানারীপাড়ায় কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগে যুবক কারাগারে বিয়ে বাড়িতে চাঁদাবাজি, ভোলায় দুই কথিত সাংবাদিক গ্রেফতার বরিশালে কালেক্টরেট সহকারী সমিতির কর্মবিরতি উপ-নির্বাচনের ফল বাতিলের দাবিতে বরিশালে যুবদলের বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত ভোলায় বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্নারের উদ্বোধন বানারীপাড়ায় কালেক্টরেট সহকারী সমিতির কর্মবিরতি: জনদূর্ভোগ মাওলানা ভাসানীর ৪৪ তম মৃত্যু বার্ষিকীতে বিভিন্ন দলের শ্রদ্ধা নিবেদন বরিশাল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩য় শ্রেণির ভর্তিতে জালিয়াতি! ৫ বছর পর রায়ে বিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ চরফ্যাশনে ১৮ মামলার পলাতক আসামি মুরাদের ২০ বছরের কারাদন্ড বরগুনায় বেড়িবাঁধে ১৩ বছরে ১৩ বার সংস্কার, পুননির্মাণে নেই পদক্ষেপ
নেই ডাক্তারি সার্টিফিকেট, তবুও ক্লিনিক চালাচ্ছিলেন তিনি

নেই ডাক্তারি সার্টিফিকেট, তবুও ক্লিনিক চালাচ্ছিলেন তিনি

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে লাইসেন্স না থাকায় অবৈধভাবে বিভিন্ন চিকিৎসা সেবা প্রদান করার অপরাধে রিন নার্সিং হোম ক্লিনিককে সিলগালা করা হয়। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ঘোড়াঘাট উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানম একজন ভুয়া নারী চিকিৎসকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে একমাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।

আটক হওয়া ভুয়া চিকিৎসক পাশ্ববর্তী গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সৈয়দ নুরুল ইসলামের মেয়ে সৈয়দা রিমা আক্তার (২৪)।

আজ সোমবার দুপুরে ঘোড়াঘাট পৌর এলাকার আজাদমোড়ে রীন নাসিং হোম ক্লিনিকে এই মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়।
এ সময় ডাক্তারি সার্টিফিকেট না থাকা সত্ত্বেও ওই নারীর নামের আগে ডাক্তার লিখে চিকিৎসা সেবা প্রদান করার অপরাধে ওই নারী চিকিৎসকে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।

ঘোড়াঘাট উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার নুর নেওয়া আহম্মেদ বলেন, ‘খবর পেয়েছি বেশ কিছুদিন থেকে ভুয়া চিকিৎসক সৈয়দা রিমা আক্তার ও তার স্বামী ডাক্তার পি কে শাহিন ঘোড়াঘাট আজাদমোড়ের একটি পাঁচতলা ভবনের তৃতীয় ও চতুর্থ তলা ভবন ভাড়া নিয়ে ডাক্তারি লাইসেন্স ছাড়াই অবৈধভাবে রিন নার্সিং হোম নামে একটি ক্লিনিক পরিচালনা করে আসছিল।’

‘সাধারণ চিকিৎসা সেবা প্রদানের পাশাপাশি গর্ভবতী নারীদের অপারেশনের (সিজার) মাধ্যমে বাচ্চা প্রসব করানো হতো সেখানে। ওই ভুয়া নারী চিকিৎকের বৈধ কোনো ডাক্তারি সার্টিফিকেট না থাকা সত্ত্বেও নিজের নামের আগে অবৈধভাবে ডাক্তার লিখে সাধারণ মানুষকে প্রতারিত করেছে’, যোগ করেন তিনি।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Dokhinerkhobor.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com